শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৬ নভেম্বর, ২০২১, ১২:৫২ রাত
আপডেট : ০৬ নভেম্বর, ২০২১, ০১:৫৭ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

রাবিতে সান্ধ্য আইন বাতিল, হলের অব্যবস্থাপনার বিরুদ্ধে অবস্থান ধর্মঘটে ছাত্রীরা

নিউজ ডেস্ক: হলে ডাইনিংয়ে বাধ্যতামূলক খাওয়া ও সান্ধ্য আইন বাতিলের দাবিতে অবস্থান ধর্মঘট পালন করছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের তাপসী রাবেয়া হলের ছাত্রীরা। শুক্রবার সন্ধ্যা পৌনে ছয়টার দিকে হলের সামনে অবস্থান ধর্মঘট শুরু করে। সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টায় এই প্রতিবেদন লেখার সময় ছাত্রীরা সেখানে অবস্থান করছে।

আন্দোলনরত ছাত্রীরা জানান, হল প্রশাসন সম্প্রতি বিজ্ঞপ্তি দিয়ে তাদেরকে ডাইনিংয়ে খেতে বাধ্য করেছে। অন্যথায় তাদের সিট বাতিল করা হবে বলে জানানো হয়।
শুক্রবার বিকেলে এ বিষয়টি নিয়ে শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে আলোচনায় বসেন হল প্রাধ্যক্ষ অধ্যাপক ফেরদৌসী মহাল৷ তবে সিদ্ধান্তে না এসেই আলোচনা থেকে চলে যান তিনি।

ছাত্রীদের অভিযোগ, ডাইনিংয়ে দাম বেশি নিয়েও মানসম্মত খাবার পরিবেশন করা হয় না। হলের শিক্ষার্থী সুমাইয়া আক্তার বলেন, হল প্রাধক্ষ্য গত মাসে নোটিশ দিয়ে জানান, মেয়েদের ডাইনিং খেতে হবে অন্যথায় সিট বাতিল করা হবে। খাবারের দাম কমানো হবে কিছুদিনের মধ্যে। কিন্তু দাম কমানো হয় নি, খাবারের মানও খারাপ। তাই আমরা আন্দোলন করছি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে হল প্রাধ্যক্ষ ফেরদৌসী মহল বলেন, ‘দীর্ঘদিন হল বন্ধ থাকায় ইলেক্ট্রিসিটির লাইনসহ অনেক কিছু নষ্ট হয়ে গেছে। তার ওপর গনরুমে পাশে ৪০ জনের রান্নার ব্যবস্থা আছে। সেখানে ১৪০ জন রান্না করছে। এ অবস্থায় রান্না করতে গিয়ে নিরাপত্তা ঝুঁকি তৈরি হতে পারে। এই আশঙ্কা থেকে এমন নির্দেশ দেওয়া।

হল ডাইনিংয়ে খাওয়া বাধ্যবাধকতা প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘ডাইনিংয়ে খাবার মানসম্মত ও দাম কম। আমি নিজেই খেয়ে দেখেছি। এছাড়া তারা যদি রান্না করতে গিয়ে কোনো দুর্ঘটনার শিকার হয় তার দায় কে নিবে?
তিনি আরও বলেন, ‘আর যারা ব্লকে থাকে তাদের জন্য রান্না ঘরের ব্যবস্থা আছে, তারা সেখানে রান্না করে খেতে পারছে।’ - বিডি২৪লাইভ

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়