প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মধুখালি ডিভাইডার যেন মরণ ফাঁদ, বাড়েছে দুর্ঘটনা

সনতচক্রবর্ত্তী: [২] ফরিদপুরের মধুখালী উপজেলা বাজারের রোড ডিভাইডার যেন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে।প্রতিনিয়ত ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। এতে প্রাণ হারিয়েছেন অনেকেই। আবার কেউ কেউ পঙ্গুত্ববরণ করে মানবতার জীবন যাপন করছে।

[৩] পথচারী বিশ্বজিৎ বলেন, মূলত দুর্ঘটনা রোধে রোড ডিভাইডারটির শুরু ও শেষের দিকে কোনো গতি প্রতিরোধক (স্পিড ব্রেকার) না থাকায় এটিই এখন ‘মরণ ফাঁদে’ রূপ নিয়েছে। যে কারণে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা। এতে মানুষ যেমন নিহত হচ্ছে তেমনি পঙ্গুত্বেরও শিকার হচ্ছেন অনেকে। প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা না নিলে আরও হতাহতের শঙ্কা রয়েছে।

[৪] মধুখালী পৌরসভার মেয়র খন্দকার মোরশেদ রহমান লিমন জানান, মধুখালী বাজারের এ রোড ডিভাইডারটি নির্মাণের পর থেকে ছোট-বড় দুর্ঘটনা ঘটেই যাচ্ছে। বিষয়টি সড়ক ও জনপথ বিভাগের সংশ্লিষ্টদের জানিয়েও কোনো ফল হচ্ছে না।

[৫] মধুখালী উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের মধুখালী পাট বাজারের সামনে জনগণের মঙ্গলের জন্য এ ডিভাইডার স্থাপন করা হলেও সেটি এখন অমঙ্গলের কারণ হয়ে উঠেছে। এটি যেন মৃত্যু ফাঁদে পরিণত হয়েছে। জেলা প্রশাসকের কাছে ডিভাইডারটি অপসারণের অনুরোধ জানিয়েছি। সে মোতাবেক তিনি ব্যবস্থা নেবেন বলে আশ্বস্ত করেছেন।

[৬] মধুখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আশিকুর রহমান চৌধুরী বলেন, বিষয়টি নিয়ে ফরিদপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগ কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা শিগগির ব্যবস্থা নেবেন বলে জানিয়েছেন।

[৭] ফরিদপুর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী নকিতুল বারী আমাদের সময় ডটকমকে বলেন, শিগগিরই ডিভাইডারের উভয় প্রান্তে মহাসড়কের প্রশস্ততা বৃদ্ধির পাশাপাশি ডিভাইডারটি কিছুটা ছোট করা হবে। এতে খুব সহজেই যানবাহন টার্ন নিতে পারবে। এছাড়া ডিভাইডারের দুই প্রান্তে সাইনবোর্ড ও সিগনাল সংযুক্ত করা হবে। এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে কাজ চলছে। সম্পাদনা: হ্যাপি

সর্বাধিক পঠিত