প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নোয়াখালীতে মন্দিরে হামলা ভাংচুর ও সাম্প্রদায়িক উস্কানির ঘটনায় আরো ১১জন গ্রেপ্তার

বিধান ভৌমিক: নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ উপজেলার চৌমুহনীসহ বিভিন্ন পূজা মন্ডপ ও মন্দিরে হামলার ঘটনায় এবং কুমিল্লার ঘটনায় উস্কানিমূলক বক্তব্যসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারের অভিযোগে আরো ১১জনকে গ্রেপ্তার করেছে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) ও বেগমগঞ্জ থানা পুলিশ।

রোববার রাতে অভিযান চালিয়ে জেলার সদর, বেগমগঞ্জ, কোম্পানীগঞ্জ, চাটখিল ও সোনাইমুড়ি উপজেলার বিভিন্ন স্থান থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন, বেগমগঞ্জের ফয়সাল ইনাম কমল, আলা উদ্দিন, ফজলুর করিম সুজন, মিন্টু, আবদুল বাকি শামীম, সেনবাগের মো. হারুনুর রশিদ, সদর উপজেলার মো. রায়হান, ফয়সাল বারী চৌধুরী, বেলায়েত হোসেন, চাটখিলের পারভেজ হোসেন ও সোনাইমুড়ির আবদুল বারেক।

এর মধ্যে ফয়সাল ইনাম কমল কুমিল্লার ঘটনার ভিডিওটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট দেয়াসহ সাম্প্রদায়িক উস্কানিমূলক পোস্টও দেয় এবং সেটি বিভিন্ন ফেসবুক ব্যবহারকারীকে শেয়ার করেন। এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়। এ ছাড়া অপর আসামীদের সহিংসতার ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে।

সোমবার ২৫ অক্টোবর সকাল সাড়ে ১১টায় পুলিশ সুপার মো. শহিদুল ইসলাম তার সভা কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, কুমিল্লার ঘটনায় নোয়াখালীতে যারা সহিংসতা চালিয়েছে তাদের কাউকে ছাড় দেয়া হবে না এবং প্রত্যেককে আইনের আওতায় আনা হবে।

 

সর্বাধিক পঠিত