প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঠ্যাডা মালেইক্কাও মাফ পেয়েছিল

কামাল আহমেদ, মুক্তিযুদ্ধের সময়ে নরঘাতক ইয়াহিয়া ও টিক্কা খানের পর যার নাম সবচেয়ে ঘৃণার সঙ্গে উচ্চারিত হত, সেই ঠ্যাডা মালেইক্কা বা এ এম মালিকের কথা এখন আর কেউ আলোচনা করে না। তখনকার গভর্ণর মালিকের পরিণতি কী হয়েছিল? ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর জেনোসাইড স্টাডিজের সর্বসাম্প্রতিক প্রকাশনায় যুক্তরাষ্ট্রের ক্লার্ক ইউনিভার্সিটির স্ট্রসলার সেন্টার ফর হলোকাস্ট এন্ড জেনোসাইড স্টাডিজ-এর গবেষক মোহাম্মদ সাজ্জাদুর রহমান বিষয়টির ওপর আলোকপাত করেছেন। `ব্রিটিশ নথিপত্রে দালাল আইন এবং গভর্ণর মালিকের বিচার` শীর্ষক গবেষণা নিবন্ধ থেকে জানা গেল, এই শীর্ষ অপরাধী দালাল আইনে যাবজ্জীবন সাজা পেলেও জেল খেটেছেন মাত্র বছর দেড়েক। তিনি সাধারণ ক্ষমায় মুক্তি পান ১৯৭৩ সালের নভেম্বরে। তারপর তিনি দেশেই ছিলেন, ৭৭ সালে মৃত্যুর আগে পর্যন্ত শান্তিতেই জীবনযাপন করেছেন। একেই বোধহয় বলে গুরু পাপে লঘু দন্ড (আসল প্রবচনটা উল্টো)।

সর্বাধিক পঠিত