প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আহসান হাবিব: বেদনা- সৃষ্টির জননী

আহসান হাবিব: ভেবে দেখলাম বেদনাই সৃষ্টির চালিকাশক্তি। কথাটা হয়তো আগে কেউ বলেছেন কিংবা বলেননি। তবে যে কথায় বাস্তব অভিজ্ঞতার প্রয়োজন আছে, তাহলেই কেবল তাকে সত্য বলে মানা যায়। আমি যখন রবীন্দ্রনাথের জীবনের দিকে তাকাই, এই সত্য অনুভব করি। সকলেই বলেন তিনি ছিলেন জমিদার। আসলে তিনি কি তা ছিলেন? তিনি প্রকৃত প্রস্তাবে তিনি জমিদারি দেখাশোনা করতেন। বিনিময়ে পেতেন মাসোহারা। তিনি একটি টাকাও বেশি পেতেন না। তিনি ছিলেন মনেপ্রাণে একজন শিল্প স্রষ্টা। এই যে তিনি জমিদারি দেখাশোনা করতে এসে প্রজাদের বিচিত্র জীবন দেখেছেন, তাদের জন্য অসীম বেদনা অনুভব করেছেন। তাদের মুক্তির জন্য ভেবেছেন, বলা যায় সারাজীবন ভেবেছেন।

এই বেদনা তার তার নিজের জীবন দিয়ে অনুভব করতে হয়নি, যা হয়েছে তার অভিজ্ঞতা আলাদা। মানুষ জমিদারি প্রথায় বন্দী, এখান থেকে তাদের মুক্তির কথা বড় পরিসরে ভেবেছেন। তিনি এমন শিক্ষার কথা ভেবেছেন যা মানুষকে স্বাবলম্বী করবে, মুক্তি দেবে। তিনি ব্যক্তি গড়তে চেয়েছেন। তিনি এমন এক সমাজ নির্মাণ করতে চেয়েছেন যেখানে সকলেই স্বাধীন এবং স্বাবলম্বী। ব্যক্তি এবং পারিবারিক জীবনে তিনি যে বেদনার অভিজ্ঞতার ভেতর দিয়ে গিয়েছেন, তার তুলনা নেই। সামাজিক জীবনেও তিনি দুঃসহ কষ্টের ভেতর দিয়ে গিয়েছেন। এসব তিনি সয়েছেন অসীম সহিষ্ণুতায় এবং সেসব তিনি তার শিল্প সৃষ্টিতে ব্যবহার করেছেন। তিনি মানুষের দুঃসহ জীবনকে নিজের হৃদয়ে অনুভব করেছেন এবং তাদের মুক্তির জন্য যার কথা সর্বাগ্রে ভেবেছেন তা হলো শিক্ষা এবং সেই লক্ষ্যেই তিনি প্রতিষ্ঠা করেছেন শান্তিনিকেতন, বিশ^ভারতী। মানুষের মুক্তির বিরুদ্ধে সামাজিক রাজনৈতিক যে প্রতিবন্ধকতা অতিক্রম করতে তিনি যে কষ্ট এবং বেদনা ধারণ করেছেন তা অশেষ।

আবার নজরুলের জীবনও বেদনায় আকীর্ণ। তিনিও মানুষের মুক্তি চেয়েছেন। তিনি পরাধীনতার বিরুদ্ধে লড়তে গিয়ে যে দুর্বিষহ যাতনা ভোগ করেছেন, তার মূলে রয়েছে মানুষের জন্য তার বেদনাবোধ। যদি তিনি এই বোধে আক্রান্ত না হতেন, তাহলে যে সৃষ্টি করেছেন কিংবা লড়াই করেছেন তা পারতেন না। নিজেকে স্রেফ শারীরিকভাবে টিকিয়ে রাখার যে প্রাত্যহিক বেদনা বা কষ্ট তা মানুষের মুক্তির জন্য অনুভ‚ত বেদনার বৈশিষ্ট্য আলাদা। এই বোধ মহান লক্ষ্যার্থকে ধারণ করে। পৃথিবীতে যেসব মহান ব্যক্তি সৃজনশীল কাজ করে গেছেন নানা মাধ্যমে, তার প্রেরণা অনুভ‚ত বেদনা থেকেই উৎসারিত। তাই জীবনে যতো বেদনা, ততো তা সৃষ্টির উদ্দীপক সে বেদনা অনুভব করতে এবং তাকে কাজে লাগাতে পারে কেবল শক্তিমান সৃজনক্ষম মানুষরাই লেখক: ঔপন্যাসিক

সর্বাধিক পঠিত