প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রেকর্ড পরিমাণে চাকরি ছাড়ছেন মার্কিনীরা, অর্থনৈতিক ঝুঁকিতে শ্রমবাজার

আখিরুজ্জামান সোহান: [২] অতীতের সব রেকর্ড ভেঙ্গে চাকরির পাট চুকছেন মার্কিনীরা। দেশটির শ্রম বিভাগের সর্বশেষ জরিপে এমন চিত্রই দেখা গেছে। তারা জানিয়েছে, গত আগস্টে ৪৩ লাখ কর্মী চাকরি ছেড়েছেন। যুক্তরাষ্ট্রের মোট চাকরিজীবীর দুই দশমিক ৯ ভাগ হচ্ছে এই সংখ্যা। আল জাজিরা

[৩] জরিপে আরো দেখা যায়, সরাসরি গ্রাহককে সার্ভিস প্রদান এবং খাদ্য পরিসেবা খাতের অন্তত ৮ লক্ষ ৯২ হাজার কর্মী তাদের কর্মস্থল ত্যাগ করেছেন, যা জুলাই মাস থেকেও প্রায় ১ লক্ষ ৫৭ হাজার বেশি।

[৪] প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এসময়ে যুক্তরাষ্ট্রে নতুন চাকরি সৃষ্টি হয়েছে এক কোটি তিন লাখ। উচ্চ চাকরি ত্যাগের হার ইঙ্গিত দেয়, আমেরিকান কর্মীরা তাদের চাকরির সম্ভাবনা সম্পর্কে কতটা আত্মবিশ্বাসী। কিন্তু তথ্যের গভীরে গেলে বোঝা যায়, করোনার ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ভয়েই সরে যাচ্ছেন তারা।

[৫] হঠাৎই এতো বিপুল সংখ্যক মানুষ চাকরি ছেড়ে চলে যাওয়া এবং এই পরিস্থিাতির জন্য সৃষ্ঠ শূন্যপদের সংখ্যা দেশটির অর্থনীতির গতি ফিরিয়ে আনার পথে বড় ধরনের বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে।

[৬] এবছর সেপ্টেম্বরে কাজে যোগ দিয়েছেন মাত্র ১ লক্ষ ৯৪ হাজার জন। যা এ বছরের সর্বনিম্ন পরিমাণ।পরিস্থিতি মোকাবেলায় কর্মীদের আকর্ষণ করতে কোম্পানিগুলো জয়েনিং বোনাস এবং বেতন বৃদ্ধির মতো প্রণোদনা প্রদান করে আসছে। প্রায় ৪২ শতাংশ ছোট ব্যবসার মালিক বলেছেন, তারা গতমাসে খরচ বাড়িয়েছেন।

[৭] দেশটিতে গতবছর ফেব্রুয়ারি থেকে এপ্রিল পর্যন্ত করোনার প্রথম আঘাতে অন্তত ২২ মিলিয়ন পদশূন্য হয়ে বেকার হয়ে পরে তবে এবছরে সেসকল চাকরির সিংহভাগই পুনরায় ফেরত আনতে সক্ষম হয়েছে দেশটির শ্রমবাজার। শেষ হিসেব অনুযায়ী, সবমিলিয়ে ৫ মিলিয়ন অর্থাৎ ৫০ লক্ষ চাকরি এখনো পুনুরুদ্ধার হয়নি, বাকী ১৭ মিলিয়ন চাকুরির অনেক অংশই এখনো পদ খালি পরে রয়েছে বর্তমানে কর্মীদের অনাগ্রহের কারণে।।

[৮] ন্যাশনাল ফেডারেশন অব ইন্ডিপেন্ডেন্ট বিজনেসের এক জরিপে দেখা গেছে, ৫১ শতাংশ ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীরা বলছেন, তাদের প্রতিষ্ঠানে কাজের সুযোগ আছে, কিন্তু তারা তাদের চাহিদা অনুযায়ী কর্মী পাচ্ছেন না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত