প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় স্কুলছাত্রীকে অপহরণের সিসিটিভি ফুটেজ (ভিডিও)

নিউজ ডেস্ক: ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় এসএসসি পরীক্ষার্থী এক কিশোরীকে ফিল্মি কায়দায় প্রাইভেটকারে উঠিয়ে অপহরণের ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছে। পুলিশ ইতোমধ্যে অপহরণে জড়িত থাকার অভিযোগে কাউসার মিয়া (৩২) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।

এ ঘটনায় সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে সদর মডেল থানায় অপহরণ মামলা করেছেন।

কিশোরীর পরিবার ও পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, ওই কিশোরীর গ্রামের বাড়ি সদর উপজেলার মজলিশপুর ইউনিয়নে। কিশোরীর পরিবার বর্তমানে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরের মধ্যপাড়ার ভাড়া বাসায় বসবাস করে। ওই কিশোরী চলতি বছরের এসএসসি পরীক্ষার্থী। স্কুলে আসা ও যাওয়ার সময় তাকে দীর্ঘদিন ধরে মৈন্দ গ্রামের ধন মিয়ার ছেলে জসিম উদ্দিন (২৫) প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছে। ওই কিশোরী প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে। এর মধ্যে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে স্কুল দীর্ঘদিন ধরে বন্ধ থাকে। সম্প্রতি স্কুল খুললে জসিম উদ্দিন পুনরায় ওই ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করা শুরু করে। এক পর্যায়ে তাকে বিয়ে করার প্রস্তাব দেয়। বিষয়টি কিশোরী তার পরিবারকে জানালে পরিবারের পক্ষ থেকে জসিমের এক আত্মীয়ের কাছে নালিশ দেওয়া হয়। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে জসিম উদ্দিন তার সহযোগীদের নিয়ে গত শনিবার (৯ অক্টোবর) দুপুরে ওই শিক্ষার্থী শহরের বাসা থেকে বের হয়ে কিছুদুর যাওয়ার পর জোর করে প্রাইভেটকারে তুলে অপহরণ করে নিয়ে যায়। ঘটনাটি সিসিটিভি ক্যামেরায় ধরা পড়ে।

কিশোরীর পরিবার ও পুলিশ জানায়, রাতে ওই কিশোরী বাসায় ফিরে তার পরিবারকে জানায়— জসিম তার সহযোগীদের নিয়ে তাকে অপহরণ করে সারা দিন বিভিন্ন স্থানে ঘুরে সন্ধ্যার দিকে সদর উপজেলার সুহিলপুর এলাকায় তাকে নামিয়ে দিয়ে যায়।

রাতেই ওই কিশোরীর মা বাদী হয়ে অপহরণকারী জসিম উদ্দিনসহ পাঁচ জনের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। পুলিশ রোববার (১০ অক্টোবর) রাতে জসিমের বড় ভাই কাউসার মিয়াকে আটক করে। সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে পুলিশ দায়েরকৃত অভিযোগ মামলা হিসেবে নথিভুক্ত করে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ এমরানুল ইসলাম বলেন, ইতোমধ্যে পুলিশ কাউছার নামে একজনকে গ্রেপ্তার করেছে। মূল আসামিসহ বাকিদের গ্রেপ্তার করার চেষ্টা চলছে।

সূত্র: রাইজিংবিডি.কম

সর্বাধিক পঠিত