প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার বিষ্ণুপুরে ৫বছরে ৩০কোটি ৩৮লাখ টাকার উন্নয়ন

এএইচ রাফি: জেলার বিজয়নগর উপজেলার বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে গত ৫বছরে ৩০কোটি ৩৮লক্ষ ২৬ হাজার ৫৫১টাকার উন্নয়ন হয়েছে। এছাড়াও বিভিন্ন উন্নয়ন প্রকল্প চলমান আছে। রোববার দুপুরে এক মতবিনিময় ইউনিয়নবাসির সামনে গত ৫বছরের উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরেন বিষ্ণুপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন ভূইয়া।

এসময় চেয়ারম্যান জামাল উদ্দিন ভূইয়া জানান, বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসার পর মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘোষণা দেন, প্রতিটি গ্রাম হবে শহর। সেই লক্ষ্যে গত ৫বছরে আধুনিক ব্রাহ্মণবাড়িয়ার উন্নয়নের রূপকার জননেতা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সার্বিক দিক নির্দেশনায় বিষ্ণুপুর ইউনিয়নে ব্যাপক উন্নয়নে কাজ করা হয়েছে। স্কুল, সড়ক যোগাযোগ, ব্রিজ-কালভার্ট, বিদ্যুৎ লাইন সম্প্রসারণ, বয়স্ক-বিধবা-প্রতিবন্ধী ভাতা, মসজিদের উন্নয়ন কাজ ইতিমধ্যে বাস্তবায়ন করা হয়েছে।

যারমধ্যে ইউনিয়নের প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্কুলে ১৩টি প্রকল্পের মাধ্যমে ৭কোটি ৮৪লক্ষ ২১হাজার টাকার কাজ করা হয়েছে। যোগাযোগ ব্যবস্থা উন্নয়নে ১৭টি প্রকল্পে ১৩কোটি ৭৪লক্ষ ১হাজার টাকা ব্যয়ে সড়কের কাজ করা হয়েছে। এক কোটি ৮৯লক্ষ ৯২হাজার টাকা ব্যয়ে ৬টি সড়ক মেরামত করা হয়েছে। ১কোটি সাড়ে ৬লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৬টি কালভার্ট-ব্রিজ করা হয়েছে। এল.জি.এস.পি-২ ও ৩ প্রকল্পে এক কোটি ৬২লক্ষ টাকা ব্যয়ে ৯৬টি কাজ বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এডিপি উন্নয়ন তহবিলের ৬৩লক্ষ ৩২হাজার টাকা ব্যয়ে ৩২টি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে।

ইউপিজিপির মাধ্যমে দুইটি প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়েছে। অতিদরিদ্রদের জন্য কর্মসংস্থান কর্মসূচি, টিআর-কাবিখা, বিশেষ বরাদ্দ, জেলা পরিষদের মাধ্যমে প্রকল্প বিগত ৫বছরে বাস্তবায়ন করা হয়েছে। এছাড়া ৭হাজার ৪৮৮জন বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী, মাতৃত্বকালীন, ভিজিডি ও ভিজিএফ প্রকল্পের মাধ্যমে সুবিধাভোগ করছেন৷ পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির মাধ্যমে ৫৩.০৬কিলোমিটার বৈদ্যুতিক লাইন সম্প্রসারণ করা হয়েছে।

এছাড়াও আরও অনেক প্রকল্প বাস্তবায়ণাধীন আছে। যার ফল আমার প্রাণপ্রিয় ইউনিয়নবাসি অচিরেই ভোগ করবে। তিনি আরও বলেন, আমি আমার ইউনিয়নবাসির সেবা করার জন্য আবারও চেয়ারম্যান হিসেবে প্রার্থী হতে চাই। যদি আমার দল, ইউনিয়নবাসি ও ব্রাহ্মণবাড়িয়াবাসির প্রিয় নেতা র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরী এমপি আমাকে যোগ্য মনে করেন। আপনাদের ভালবাসা নিয়ে আমি বেঁচে থাকতে চাই।

ইউনিয়ন পরিষদে আয়োজিত বিশিষ্ট সমাজসেবক গিয়াস উদ্দিন ভূইয়ার সভাপতিত্বে মতবিনিময় সভায় ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ৯টি ওয়ার্ডের মধ্যে ৮টি ওয়ার্ডের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন। সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা ক্রিড়া সংস্থার সহ-সভাপতি সার্জেন (অব.) কাঞ্চন আলী, আওয়ামী লীগের পক্ষে বক্তব্য রাখেন ৮নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হোসেন, সুধী সমাজের পক্ষে বক্তব্য রাখেন সামসুল হক মাস্টার।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত