প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২৫ বছর পেরোলেই নারীদের যে টেস্টগুলো করানো জরুরি

ডেস্ক নিউজ: আমরা মহিলারা নিজেদের ব্যাপারে সব সময়েই বড্ড বেশি উদাসীন। পরিবারের দায়িত্ব পালন করা, অফিস বা নিজের কাজের জগতে দায়িত্ব পালন করার বিষয়ে পিছপা না হলেও, নিজেদের স্বাস্থ্যের বিষয়ে কোনও জরুরি পদক্ষেপ নিতে গেলে যেন আমাদের গায়ে জ্বর আসে।

জ্বর, কাশি, বুকে ব্যথা – এইসব বিষয়গুলোকে অনায়াসে অবহেলা করে থাকেন বেশিরভাগ মহিলাই। যতক্ষণ না পর্যন্ত ‘ছোটখাটো’ শারীরিক সমস্যাগুলো রীতিমত বড় আকার ধারণ করছে, ততক্ষণ পর্যন্ত না স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাই, না চিকিৎসকের দ্বারস্থ হই।

বছরে অন্তত একবার করে হলেও ৩টি টেস্ট করাতে হবে।

এর মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন শরীর কতটুকু সুস্থ। এছাড়াও কোনো রোগের আশঙ্কা থাকলে তাও জানতে পারবেন এই টেস্টগুলোর মাধ্যমে। জেনে নিন কোন টেস্টগুলো করাবেন-

ম্যামোগ্রাম
বর্তমানে স্তন ক্যানসারে আক্রান্তের সংখ্যা অনেক বেড়েছে। এক্ষেত্রে একটি ছোট্ট মাংসপিণ্ড বা ফোলাভাব দেখা যায়।

বেশিরভাগ নারীই প্রথমদিকে তা পাত্তা দেন না। এর ফলে ওই মাংসপিণ্ড বড় আকার ধারণ করে। পরবর্তীতে তা স্তন ক্যানসারে পরিণত হয়। অনেক সময়ই স্তনের ফোলাভাবটি কিন্তু ম্যালিগন্যান্ট হয়।

তাই স্তনে ব্যথা হওয় বা কোনো মাংসপিণ্ড দেখা দেয় তাহলে দেরি না করে চিকিৎসকের সাহায্য নিন। ম্যামোগ্রাম টেস্ট করালেই এ বিষয়ে জানতে পারবেন।

চোখের চেক আপ
তথ্যপ্রযুক্তির এ যুগে সবাই স্মার্টফোন-কম্পিউটারে দীর্ঘক্ষণ চোখ রাখেন। এর ফলে ছোট-বড় অনেকেই অল্প বয়সে চোখের সমস্যায় ভুগছেন।

এজন্য নিয়মিত চোখ পরীক্ষা করানো জরুরি। বিশেষ করে ২৫ বছর পার হলেই নিয়মিত চোখ পরীক্ষা করাতে হবে।

ব্লাড সুগার টেস্ট
অনিয়মিত জীবনযাপনের কারণে রক্তে শর্করার পরিমাণ বেড়ে যায় অনেক নারীর। বর্তমানে ডায়াবেটিসে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়েই চলেছে।

তাই ২৫ বছর পার হলেই নিয়মিত ব্লাড সুগার পরীক্ষা করা জরুরি। এই স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার আগে অন্তত ১২ ঘণ্টা না খেয়ে থাকতে হয়। তাই ভোরবেলা এই পরীক্ষা করালে সঠিক ফলাফল পাবেন।

যদি ৯৯ এর নীচে থাকে ব্লাড সুগারের মাত্রা তাহলে চিন্তার কারণ নেই। তবে ১০০-১১০ হলে তাকে বলা যেতে পারে প্রি-ডায়েবেটিক। আর ১১০ এর বেশি হলে চিকিৎসকের পরামর্শ নিতে হবে।

কতদিন অন্তর এই স্বাস্থ্য পরীক্ষাগুলো করাবেন?
আপনার বয়স, ওজন, পারিবারিক স্বাস্থ্যের ইতিহাস, শারীরিক সমস্যা ইত্যাদির উপরে নির্ভর করছে যে আপনি কতদিন অন্তর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করাবেন।

যদি আপনার নির্দিষ্ট কোনো শারীরিক সমস্যা থাকে তাহলে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ মেনে নির্দিষ্ট সময় অন্তর টেস্টগুলো করানো উচিত। ৭১ নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত