প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বোয়ালমারীতে পূজার শেষ মুহূর্তে ব্যস্ত ঢাকিদার

সনতচক্রবর্ত্তী: [২] হিন্দু সম্প্রদায়ের দুর্গাপূজা উৎসবের অন্যতম অনুসঙ্গ হলো ঢাকের বাজনা। ঢাকির বাজনা নাহলে পূজা পূর্নতা পায় না। দুর্গাপূজার সময় বিভিন্ন এলাকায় থেকে পূজা আয়োজনকারীরা আসেন বোয়ালমারীতে ঢাকি ও অন্যান্য বাদ্যযন্ত্রী ভাড়া করতে।

[৩ ]পাঁচদিন ধরে পূজা অনুষ্ঠিত হয়। ষষ্ঠী থেকে দশমি পর্যন্ত দিন-রাত প্রায় সব সময় প্রতিটি মন্দিরে শোনা যায় ঢাকের বাজনা।

[৪] আগামী ১১ অক্টোবর ষষ্ঠী পূজার মধ্য দিয়ে পাঁচ দিন ব্যাপী হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের সবচেয়ে বড় ধর্মীয় উৎসব শারদীয় দুর্গাপূজা শুরু হতে যাচ্ছে। শারদীয় দুর্গা উৎসবকে সামনে রেখে বোয়ালমারীতে ঢাক তৈরিতে ব্যস্ত সময় পার করছেন ঢাক তৈরির কারিগররা। এ সময়ে দম ফেলার সময় নেই কারিগরদের। এখন চলছে নতুন বা পুরাতন ঢাকর তৈরির কাজ।

[৫] করোনা মহামারিতে গত বছর দুর্গা পূজার আয়োজন কম হওয়ার ঢাকিদারদের প্ররিশ্রম কম দেওয়া হয়েছে।গত বছর বোয়ালমারীতে ১১৩ টি দুূর্গা প্রতিমা তৈরি হয়েছিল। এ বছর এখন ১১৪ টি মন্ডপে পূজা হবে বলে জানান যায়। তবে এ বছর বছর ঢাকিদের মজুরি গত বছর এর তুলোনায় বেশি। দুর্গা উৎসব আসলে এসব ঢাকিদার বা বাজনাদার দের কদর বেড়ে যায়। ।

[৬] বোয়ালমারী জর্জ একাডেমি মার্কেটে দোকান কার্তিক যন্ত্র ভান্ডার এর মালিক, কার্তিক চন্দ্র বিশ্বাস বলেন, দৃর্গা পূজাকে সামনে রেখে এবার ২০টি ঢাকের কাজ পেয়েছি। ৬টি নতুন তৈরি করতে হবে আর মেরামত করতে হবে ১৪টি। দিনরাত ২৪ ঘণ্টা ঢাক তৈরির বা পুরাতন ঢাক মেরামতের তৈরির কাজে নেমে পড়েছেন অনেকে। সঠিক সময়ে মেরামত বা নতুন তৈরির কাজ শেষ করতে হবে বলে পরিবারের সদস্যরা নিয়ে রাত-দিন ব্যস্ত সময় পার করছি। গত মাস থেকে আমাদের কাজের গতি বেড়ে গেছে। এ পুরো মাস দম ফেলার ও সুযোগ কম আমাদের। তবে বছরের অন্য সময় কাজ থাকে না। এ এক দেড় মাসের আয় দিয়ে পুরো বছরের সংসার চলে। তবে মাঝে মাঝে ঢোলের কাজ করি।

[৭] তিনি বলেন, আমাদের তৈরি জিনিসপত্রের চাহিদা থাকলেও করোনায় অনেকে আর্থিক অনটনের পূজার সংখ্যা কমেগেছে। যে এলাকায় বিত্তশালীরা বাস করেন তাদের এলাকায় পূজা মন্ডপে প্রচুর অর্থ খরচ করেন। তবে আগের মতো ঢাকের কাজে পারিশ্রমিক অনুযায়ী অর্থ নেই। যে কারণে আমাদের এ পেশায় থাকা কষ্টসাধ্য হয়ে গেছে।

[৮] বছরের অন্যান্য সময় অনেকে ঢাকের কারিগরি বাঁশ, বেত,জুতা সেলাই কাজসহ বিভিন্ন পেশায় কাজকর্ম করে জীবন-জীবিকা নির্বাহ করে থাকে অনেকে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত