প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] খুলনার তেরখাদা বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ড

শরীফা খাতুন: [২] খুলনার তেরখাদা বাজারে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডে প্রায় ১০ থেকে ১৫ টি দোকান ও মালামাল রাখার গুদাম পুড়ে ভষ্মিভূত হয়েছে।

[৩] মঙ্গলবার বিকেল পৌনে ৫ টায় এ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। রূপসা সেনের বাজার ফায়ার সার্ভিসের ইউনিট এক ঘন্টার চেষ্টা করে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।

[৪] স্থানীয়রা জানান, আগুনে সুধীর সাহা, কালু সাহা, হামিদ শেখের মুদির দোকান, অসীম সাহার রাইচ মিল, ইশারুলের চাউলের দোকান সহ, বিধান সাহার টিনের দোকান, রাইচ মিল, তেল-পেট্রোল-চাউলের গোডাউনসহ প্রায় ১৫ টি দোকান পুড়ে গেছে।

[৫] অগ্নিকান্ডে ব্যবসায়ীদের প্রায় ২ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে বলে জানান ভুক্তভোগী ব্যবসায়ীরা।

[৬] তেরখাদা বাজার কমিটির সাধারন সম্পাদক মোল্যা ব্যবসায়ী আব্দুর রাজ্জাক কচি বলেন, বাজারের মুদি ব্যবসায়ী সুধির সাহার দোকানে আগুন দিয়ে পিচ গলাতে গিয়ে আগুনের সূত্রপাত হয়। মুহুর্তে আগুন ছড়িয়ে পরে আশপাশের মালামাল, তেলের গুদাম ও দোকানে। দোকান ও গুদামের মালামাল কেউ সরাতে পারেননি।

[৭] রূপসার উপজেলার সেনেরবাজার ফায়ার সার্ভিসের ইন্সটেক্টর নূর ইসলাম বলেন, ফায়ার সার্ভিস স্টেশনটি ঘটনাস্থল থেকে ২৩ কি.মি. দূরে। খবর পাওয়ার পর আমাদের ইউনিট ঘটনাস্থলেএসে আগুন নেভাতে সক্ষম হয়েছে। আগুনের সূত্রপাত এবং ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে এখনও জানা যায়নি।

[৮] তেরখাদা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবিদা সুলতানা বলেন, খবর শোনার পরই ফায়ার সার্ভিস ইউনিটকে জানিয়েছি এবং ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। আগুনে সব মিলিয়ে ১০-১৫ টি দোকান, রাইচমিল ও মালামালের গুদাম পুড়ে যায়।

[৯] তেরখাদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম বলেন, ৪/৫ টি দোকান ঘরের কোন কিছুই নাই, আর ৫টি ঘরের অর্ধেক ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে। সুধীর সাহা ও কালু সাহার গোডাউনে প্রায় কোটি টাকার ক্ষতিসাধন হয়েছে। সব মিলিয়ে প্রায় দেড় কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে।

[১০] খুলনা-৪ আসনের এমপি আব্দুস সালাম মূর্শেদী বলেন, উপজেলা প্রশাসনের মাধ্যমে আগুন লাগার ঘটনার খোঁজ খবর নিয়েছি। এত বড় ক্ষতি পূরন করা খুবই কঠিন। আমার ব্যক্তিগত তহবিল থেকে আর্থিক সহযোগিতা করা হবে।

[১১] এদিকে, খবর পেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দোকানগুলো পরিদর্শন করতে আসেন, তেরখাদা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শহিদুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবিদা সুলতানা, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মো. শারাফাত হোসেন মুক্তি, তেরখাদা থানারভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) মো. মোশাররফ হোসেন, উপজেলা আ’লীগের সাধারন সম্পাদক ইউপি চেয়ারম্যান কে এম আলমগীর হোসেন সহ বিভিন্ন পর্যায়ের রাজনৈতিক ব্যক্তিরা।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত