প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মহেশখালীতে পর্যটকবাহী ট্রলারডুবির ঘটনায় ১৪ জন উদ্ধার ১ জন নিখোঁজ

আয়াছ রনি: [২] কক্সবাজার মহেশখালী সোনাদিয়া চ্যানেলে পর্যটকবাহী ট্রলারডুবির ঘটনা ঘটেছে। ৪ অক্টোবর সোমবার রাত ৯টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

[৩] তবে জাতীয় জরুরি সহায়তা ‘৯৯৯’ কল দিয়ে সহায়তা চান এক ভুক্তভোগী। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাত সাড়ে ১১টার দিকে ১৪ জনকে জীবিত উদ্ধার করে। এ ঘটনায় একজন নিখোঁজ রয়েছেন।

[৪] মহেশখালী থানার ওসি (তদন্ত) আশিক ইকবাল বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জাতীয় জরুরি সহায়তা ‘৯৯৯’ কল পেয়ে পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কয়েকটি ইউনিট রাত সাড়ে ১১টার দিকে ১৪ জনকে জীবিত উদ্ধার করে। এ ঘটনায় শাকিব হাসান নামে একজন নিখোঁজ রয়েছে। এরা সকলেই চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের বাঘকুম গ্রামের বাসিন্দা।

[৫] উদ্ধার পাওয়া ব্যক্তিরা হচ্ছেন, কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের বাঘকুম পাড়া গ্রামের আব্দুল গনীর পুত্র নুরুল আলম, জালাল আহামদের পুত্র বেলাল (৩০) ইউচুপ জালালের পুত্র আব্দুশুকুর(২৭) মমতাজ আহামদের পুত্র কবির আহামদ (৫১) জালাল আহামদের পুত্র মামুনুর রশিদ(২৩) আবুল খায়ের এর পুত্র টিটু (২৪) লেয়াকত আলীর পুত্র বাবুল (২৬) শামসুল আলমের পুত্র তৌহিদ (৩০), মো আলীর পুত্র ইসমাইল (২৫), ইসমাইল (২৫), রমজানুল হকের পুত্র ইনজামামুল ২৭), শওকত আলীর পুত্র খোরশেদ আলম(৩৪), মো. আলীর আব্দুল্লাহ(৩২) আব্দুর রহিমের পুত্র মো. ফারুক (২৪) ও ইয়ার মোহাম্মদের পুত্র আসাহাব উদ্দিন (৩৩)। নিখোঁজ রয়েছে জাফর আলমের পুত্র শাকিব হাসান (২৩)।

[৬] উদ্ধার হওয়াদের বরাতে পুলিশ জানায়, খুটাখালীর ১৫ জন বন্ধু মিলে গতকাল সকাল সাড়ে ৯টায় ইঞ্জিনচালিত ট্রলারযোগে সোনাদিয়া দ্বীপে ভ্রমণে যায়।

[৭] সোনাদিয়া ভ্রমণ শেষে দুপুরে বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত জাহাজ দেখতে গভীর সাগরে যান। ফেরার পথে রাত ৮টার দিকে ট্রলারটি বালুর চরে আটকা পড়ে। একপর্যায়ে সবাই মিলে আটকেপড়া থেকে ট্রলারটি ছাড়ানোর চেষ্টা চালায়। তবে ভাটার টানে সাগরের মাঝখানে চলে যায়। তারা প্রাণে বাঁচতে কুলে ওঠার চেষ্টা করলে খালে পড়ে যায়। এরপর ৯৯৯ নম্বরে কল দিয়ে সহযোগিতা চান ভুক্তভোগীরা।

[৮] মহেশখালী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. মাহফুজুর রহমান জানান, রাতেই ঘটনার খবর পেয়ে তাঁদের উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় এখনো একজন নিখোঁজ রয়েছে। তাঁকে উদ্ধারের চেষ্টা চলছে।

সর্বাধিক পঠিত