প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] কুমিল্লায় মাদরাসার ছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা

শাহাজাদা এমরান : [২] জেলার চান্দিনায় সালমা আক্তার (১৪) নামে এক মাদরাসা ছাত্রীকে গলা কেটে হত্যা করে পুকুরে ফেলে দিয়েছে দুর্বৃত্তরা।

[৩] শনিবার সকালে উপজেলার গল্লাই ইউনিয়নের বসন্তুপুর গ্রামের একটি পুকুর থেকে তার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করে চান্দিনা পুলিশ। চান্দিনা থানার এসআই সুজন এ তথ্য নিশ্চিত করেন। নিহত সালমা আক্তার একই এলাকার সোলাইমান ব্যাপারীর মেয়ে। সে গোল্লাই দারুল উলম ইসলামীয়া মাদরাসার অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী ছিল।

[৪] নিহত ছাত্রীর বাবা সোলাইমান ব্যাপারী অভিযোগ করে বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে আমার ভাইয়ের ছেলে শাহ কামাল, শাহ জালাল ও ভাতিজি জামাই ওযায়েরের সঙ্গে জমির টাকা পাওনা নিয়ে বিরোধ চলছিল। একটি জমি কিনে ৫ লাখ টাকা দেওয়ার কথা বলে প্রাথমিকভাবে ১০ হাজার টাকায় জমি বায়না করে তারা। কিন্তু পরে আমাকে ও আমার পরিবারকে হুমকি দিয়ে ওই ১০ হাজার টাকাও ফেরত নিয়ে নেয় এবং বলে কোনো টাকাই দেবে না।’

[৫] তিনি আরও জানান, বিষয়টা মিমাংসা করার জন্য গ্রাম্য মাতবরদের জানালেও তারা কোনো উদ্যোগ নেননি। পরে ভাতিজি জামাই ও ভাইয়ের ছেলেদের টাকা দিতে বললে তারা তার স্ত্রীর ওপর হামলা করে। গুরুতর আহত অবস্থায় তার স্ত্রীকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শুক্রবার (১ অক্টোবর) হামলার ভয়ে তিনি বাড়ির বাইরে ছিলেন। রাতে তার মেয়ে বাড়িতে একা ছিল। এই সুযোগে তারা ঘরের বেড়া কেটে মেয়ে সালমা আক্তারকে তুলে নিয়ে গলা কেটে হত্যা করে পুকুরে ফেলে দেয় বলে অভিযোগ করেন তিনি।

[৬] চান্দিনা থানার এসআই সুজন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসা হয়। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ কুমেক হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ কাউকে আটক করতে পারেনি বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে তারা রহস্য উদঘাটনে কাজ করছে।

[৭] দুপুরে এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে চান্দিনা থানার ওসি মোহাম্মদ আরিফুর রহমান জানান, আমরা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যাই এবং নিহতের মরদেহ উদ্ধার করি। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ওই হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। আমরা ঘটনাটি তদন্ত করে দেখছি এবং হত্যায় জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে। সম্পাদনা: জেরিন আহমেদ

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত