প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] চৌগাছায় চারদিন পর দুই শিশু উদ্ধার, মা নিখোঁজ

বাবুল আক্তার : [২] যশোরের চৌগাছায় দুই শিশু সন্তানসহ নিখোঁজ হয় গৃহবধু সাগরিকা খাতুন (২৩)। নিখোঁজ হওয়ার চারদিন পরে গতকাল বুধবার উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সাইকেল গ্যারেজ থেকে শিশু সাগর হোসেন সাফিন (৫) ও মেয়ে মোহনা আক্তার জুলেখা (২০মাস) উদ্ধার হয়েছে। গত রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) বাড়ি থেকে দুই শিশু সন্তান নিয়ে নিখোঁজ সাগরিকা। উদ্ধার হওয়া শিশু দুটি উপজেলার পাতিবিলা ইউনিয়নের হায়াতপুর গ্রামের আক্তারুল ইসলামের সন্তান।

[৩] জানা যায়, গতকাল সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের সাইকেল গ্যারেজ কাঁদছিলো শিশু দুটি। গ্যারেজের দায়িত্বে থাকা মফিজুর রহমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা কে জানান। তিনি বিষয়টি থানা পুলিশকে জানান। পরে পুলিশ শিশু দুটিকে উদ্ধার করে থানায় নেন। অল্প সময়ের মধ্যে সামাজিক মিডিয়ায় শিশু দুটির ছবি ও ভিডিও ভাইরাল হলে বাচ্চাদুটি বাবাসহ স্বজনরা হাসপাতালে পৌছান।

[৪] হাসপাতালে সাগরীর স্বামী আক্তারুল ইসলাম জানান, গত রবিবার (২৬ সেপ্টম্বর) দুই সন্তান নিয়ে বাড়ি থেকে সাগরী সবার অগোচরে কোথাও চলে যায়। সাগরিকার বাবার বাড়ি উপজেলার স্বরুপদাহ ইউনিয়নের চুটার হুদা গ্রামে। নিখোঁজ হওয়ার পরে সাগরীকার বাবার বাড়িসহ বিভিন্ন স্থানে খুঁজাখুজি করেও না পেয়ে মঙ্গলবার চৌগাছা থানায় সাধারণ ডায়েরী করেন তার স্বামী। এরপর সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে এসে তাঁর দু’সন্তানকে পুলিশ হেফাজতে পান।

[৫] স্বামী আক্তারুল ও তার স্বজনদের ধারনা সাগরীকার অন্য কোন ছেলের সাথে সম্পর্ক আছে। সেই সূত্রেই হয়ত সে চলে গেছে। সন্তানদের কোলে নিয়ে আবেগ ঘন মুহুর্তে আক্তারুল জানান, একটা নাম্বারে মাঝে মধ্যে কথা বলতো। আমি এ নিয়ে তাকে বকঝকাও করেছি। একদিন মেরেছিও। এ নিয়ে বাড়ি থেকে চলে যাওয়ার হুমকিও দেয় সাকরিকা।

[৬] তিনি বলেন যাওয়ার সময় বাড়ি থেকে নগদ ২০ হাজার টাকাসহ ভালো কাপড় সব নিয়েগেছে।

[৭] আক্তারুলের মা বলেন, বউমা খুব সুন্দরী। আক্তারুলের ভাই জানান, সারিকা তার এক জা’ এর স্বর্ণের গহনা চুরি করে বাজারে বিক্রি করেছে সেই টাকাও তার কাছে রয়েছে।

[৮] সাইকেল গ্যারেজের দায়িত্বে থাকা মফিজুর রহমান জানান, সকালে এসে বাচ্চা দুটিকে বসে থাকতে দেখি। ভেবেছিলাম তাঁদের মা হয়ত বসিয়ে রেখে ডাক্তার দেখাতে গেছেন। পরে বাচ্চা দুটি খুব কান্নাকাটি করতে দেখে ম্যাডামকে জানাই। এসময় ওদেরকে স্থানীয় কয়েকজন জিজ্ঞেস করলে ছেলেটি তাঁর বাবার নাম আক্তারুল আর বাড়ি হায়াতপুর বলতে পারে। তখন তাঁরা পরিচিতজনদের মাধ্যমে পরিবারকে খবর দেয়।

[৯] উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. লুৎফুন্নাহার বলেন, সাইকেল গ্যারেজের দায়িত্বে থাকা মফিজুর জানায় সেখানে দুটি বাচ্চাকে তাঁর মা রেখে চলে গেছে। তাঁরা খুব কান্নাকাটি করছে। তখন বিষয়টি থানা পুলিশকে জানাই।

[১০] চৌগাছা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রাজেশ কুমার বলেন, স্বাস্থ্য কর্মকর্তার কাছ থেকে সংবাদ পেয়ে হাসপাতালে এসে তাঁদের উদ্ধার করি। থানার সাধারণ ডায়েরী (জিডি)মূলে স্থানীয় ইউপি সদস্যের উপস্থিতিতে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

[১১] চৌগাছা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুল ইসলাম সুবজ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

সর্বাধিক পঠিত