প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শর্ত মেনে আমি কাজ করি না: দীঘি

ইমরুল শাহেদ: শাপলা মিডিয়া প্রযোজিত এবং বজলুর রাশেদ চৌধুরী পরিচালিত ‘মানব দানব’ ছবি থেকে অনেক আলোচনার পর বাদ পড়েছেন দীঘি। তার স্থানে নেওয়া হয়েছে নাট্যাভিনেত্রী শালুককে। তিনি চলচ্চিত্রে প্রথম হলেও মিডিয়া জগতে পুরনো। তার মায়ের পরিচিত জনের মাধ্যমে তিনি শাপলা মিডিয়ার সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন। তাও আবার বিদেশি নায়কের সঙ্গে। এদেশের চলচ্চিত্র দর্শকের কাছে শালুক এবং বনি সেনগুপ্ত – দুজনেই সমানভাবে অপরিচিত। দীঘি কি ছবিটি থেকে সত্যিই বাদ পড়েছেন, নাকি দীঘি নিজেই ছবিটি ছেড়ে দিয়েছেন। গণমাধ্যমের কাছে শাপলা মিডিয়ার প্রযোজক সেলিম খান অভিযোগ করেন, দীঘি টিকটক করার কারণে তাকে বাদ দেওয়া হয়েছে। দীঘি বাদ যাওয়ার খবর যখন চাউর হয়, তার আগেই শালুককে ছবিটিতে চুক্তিবদ্ধ করা হয়েছে। ছবিটির জন্য দীঘির কাছে যে সময়ের শিডিউল চাওয়া হয়েছে সে সময়ের কাছাকাছি সময়ের শিডিউল তার দেওয়া আছে অনুদানের ছবি ‘শ্রাবণ জোৎস্নায়’-এর জন্য।

ছবিটি নির্মিত হচ্ছে কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলনের একই নামের উপন্যাস অবলম্বনে। ২০২০-২১ অর্থবছরে অনুদান পাওয়া ‘শ্রাবণ জোৎস্নায়’ শিরোনামের এই ছবিটি পরিচালনা করছেন আবদুস সামাদ খোকন। ছবিটি প্রসঙ্গে দীঘি বলেন, ‘অনুদানের এই সিনেমায় কাজের ব্যাপারটি আগে থেকেই শিডিউল দেওয়া ছিল। ইমদাদুল হক মিলন স্যারের উপন্যাসের গল্পের নায়িকা হচ্ছি; সেজন্য কাজটি নিয়ে আমি বেশ আগ্রহী। আশা করছি প্রজেক্টটি দারুণ হবে।’ মানব দানব ছবির পরিচালক বজলুর রাশেদ চৌধুরী গণমাধ্যমকে দীঘিকে নিয়ে বলেছেন, আলাপ-আলোচনা এবং সমঝোতার মাধ্যমেই দীঘির সঙ্গে এ ছবিতে কাজ করা হচ্ছে না। প্রযোজক সেলিম খান বলেন, ‘দীঘি ছবিতে থাকছেন এমন কথা আমি কখনও বলিনি। তবে যে নায়িকাকে সবসময় টিকটকে দেখা যায়, তাকে কেন লোকে টাকা দিয়ে হলে গিয়ে দেখবে? এটা একটা ব্যবসায়িক জায়গা। বিষয়টি সবার মাথায় রাখতে হবে।’ পক্ষান্তরে দীঘির ভাষ্য হলো ‘আমাকে তো কোন শর্তই দেওয়া হয়নি।

ছবিটি করতে পারছি না শিডিউল জটিলতার কারণে। ‘মানব দানব’ শুটিং যখন শুরু হবে, সেসময় আমার অন্য ছবির কাজ আছে। তাই আমি ছবিটি থেকে সরে দাঁড়িয়েছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘আর টিকটকে ভিডিও করতে পারব না- এমন কোনো শর্ত দেওয়া হয়নি। সেলিম আঙ্কেল আমাকে পরামর্শ দিয়েছেন টিকটক ভিডিও কম করতে। তিনি আমার মুরব্বি, তিনি আরও কিছু পরামর্শ দিয়েছেন আমাকে। এখানে শর্ত বিষয়গুলো কেন আসছে? বিভিন্ন গণমাধ্যমে দেখলাম, সবাই শর্ত, শর্ত লিখছে; কেন?’ দীঘির মা দোয়েলের ক্যারিয়ার শুরু হয়েছিল সাহিত্যনির্ভর চলচ্চিত্র ‘চন্দ্রনাথ’ দিয়ে। দীঘিও এক্ষেত্রে উপন্যাসনির্ভর ছবিকেই প্রাধান্য দিয়েছেন।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত