প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ফায়ার সার্ভিস অধিদপ্তরের ৪১তম ব্যাচের অফিসারদের সমাপনী কুচকাওয়াজ সম্পন্ন

সুজন কৈরী: [২] ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের ৪১তম ব্যাচের অফিসার্স ফাউন্ডেশন কোর্সের সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রোববার মিরপুরস্থ ফায়ার সার্ভিস ট্রেনিং কমপ্লেক্সের প্যারেড গ্রাউন্ডে সকাল সাড়ে ১১টায় এই কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হয়।

[৩] অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন। বিশেষ অতিথি ছিলেন সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব মো. মোকাব্বির হোসেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন। এছাড়া অনুষ্ঠানে সুরক্ষা সেবা বিভাগের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা, ফায়ার সার্ভিসের পরিচালক, ট্রেনিং কমপ্লেক্সের অ্যধ্যক্ষ এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

[৪] পিএসসি’র সুপারিশ করা ২১ জন বিসিএস নন-ক্যাডার কর্মকর্তাসহ ফায়ার সার্ভিস অধিদপ্তরে যোগ দেওয়া মোট ৪৪ জন অফিসারের প্রশিক্ষণ সমাপ্তি শেষে তাদের পদায়নের আগে এই সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠিত হলো। প্রায় বছরব্যাপী প্রশিক্ষণের মাধ্যমে তাদের সকল দুর্যোগে নেতৃত্ব দানে যোগ্য করে গড়ে তোলা হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে ৪৪ জন অফিসারের মধ্যে শারীরিক যোগ্যতা, বুদ্ধিমত্তা, শিষ্টাচার, শৃঙ্খলা, আচার-ব্যবহার, লিখিত, ব্যবহারিক এবং মৌখিক পরীক্ষাসহ বিভিন্ন বিষয়ের উপর দক্ষতার ভিত্তিতে তিন জনকে চৌকস নির্বাচিত করা হয়। প্রথম চৌকস নির্বাচিত হন শেখ তরিকুল ইসলাম, ২য় হন খন্দকার মিরাজুল ইসলাম এবং ৩য় নির্বাচিত হন মিল্টন আহমেদ। নির্বাচিতদের পদক পরিয়ে দেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি।

[৫] কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্যারেড কমান্ডারের দায়িত্ব পালন করেন অধিদপ্তরের উপসহকারী পরিাচলক আনোয়ারুল হক। প্যারেড অ্যাডজুটেন্ট ছিলেন ওয়ারহাউজ ইন্সপেক্টর নাজিম উদ্দিন সরকার। পতাকাবাহী দলসহ অপর দুটি কনটিনজেন্ট কুচকাওয়াজে প্রধান অতিথি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে মার্চপাস্ট করে অভিবাদন জ্ঞাপন করে। এ সময় পতাকাবাহী দলের নেতৃত্ব দেন জুনিয়র ইন্সট্রাক্টর মো. শামীম আহম্মেদ, ১ম কনটিনজেন্টের নেতৃত্ব দেন প্যারেড অ্যাডজুটেন্ট এবং দ্বিতীয় কনটিনজেন্টটির নেতৃত্ব দেন স্টেশন অফিসার মো. জিল্লুর রহমান।

[৬] প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাফল্যের সাথে ফাউন্ডেশন কোর্স সমাপ্ত করার জন্য নবনিযুক্ত সকল অফিসারকে আন্তরিক ধন্যবাদ ও অভিনন্দন জ্ঞাপন করেন। তিনি এ সময় ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের সক্ষমতা বৃদ্ধিতে সরকারের গৃহীত পদেক্ষেপগুলো তুলে ধরেন এবং এই ধারা অব্যাহত থাকবে বলে আশ্বাস প্রদান করেন। তিনি সফলভাবে সমাপনী অনুষ্ঠান বাস্তবায়ন করায় সংশ্লিষ্টদের আন্তরিক ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। সেই সঙ্গে নবীন অফিসাররা সকল দুর্যোগে মানুষের মূল্যবান জীবন ও রাষ্ট্রীয় সম্পদের ক্ষতি কমিয়ে আনতে নিবেদিত থাকবেন বলে আশা প্রকাশ করেন।

[৭] এর আগে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব মো. মোকাব্বির হোসেন। অনুষ্ঠানে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. সাজ্জাদ হোসাইন।

সর্বাধিক পঠিত