প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নাটকীয় ম্যাচ শেষে শীর্ষে লিভারপুল

স্পোর্টস ডেস্ক : লিগের শুরু থেকেই একই ছন্দে এগোচ্ছিল লিভারপুল ও চেলসি। দুই দলের পয়েন্ট, গোল ও গোল ব্যবধান এক, এমনকি প্রতিটি রাউন্ডে দুই দলের স্কোরলাইনও এক ছিল। ফলে প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষস্থানে অধিকার ছিল দুই দলের। আজ ম্যানচেস্টার সিটির বিপক্ষে ঘরের মাঠে চেলসি হেরে যাওয়া শীর্ষে ওঠার সুযোগ এসে যায় লিভারপুলের কাছে। সুযোগটা কাজে লাগিয়েছে লিভারপুল। তবে জয় পায়নি, ব্রেন্টফোর্ডের সঙ্গে ৩-৩ গোলে ড্র করেছে লিভারপুল।

মহা নাটকীয় এক ম্যাচ হয়েছে ব্রেন্টফোর্ড কমিউনিটি স্টেডিয়ামে। ম্যাচের শুরু থেকে লিভারপুলই দাপট দেখিয়েছে, কিন্তু আক্রমণের নিশ্চিত সুযোগ সৃষ্টিতে টমাস ফ্র্যাঙ্কের শীর্ষরাই এগিয়ে ছিল। ২৭ মিনিটে ইভান টনির ব্যাক ফ্লিকে বিভ্রান্ত হয়ে পড়ে লিভারপুল ডিফেন্স। আর সে সুযোগে গোল করেন ইথান পিনক। গা ঝাড়া দিয়ে ওঠা লিভারপুল ৪ মিনিট পরই ম্যাচে ফিরেছে। ডান প্রান্ত থেকে আসা হেন্ডারসনের ক্রসে মাথা লাগিয়ে দলকে ম্যাচে ফেরান দিয়েগো জোতা।

ম্যাচ আরও জমে উঠেছে দ্বিতীয়ার্ধে। ৫৪ মিনিটে লিভারপুলকে প্রথমবারের মতো এগিয়ে দেন মোহাম্মদ সালাহ। লিভারপুলের জার্সিতে প্রিমিয়ার লিগে এটা তাঁর শততম গোল। লিভারপুলের হয়ে সবচেয়ে দ্রুত শততম গোলের রেকর্ডের সে আনন্দ মুছে গেছে ৯ মিনিট পর। ভিটালি জ্যানেট স্বাগতিকদের সমতায় ফেরান দারুণ এক গোলে।

লিভারপুল অবশ্য আবার এগিয়ে যেতে সময় নেয়নি। ৬৭ মিনিটে দলকে দ্বিতীয়বার এগিয়ে দেন কার্টিস জোন্স। এই তরুণ গোল করেই মাঠ ছাড়েন, মাঠে নামেন ফর্ম হারিয়ে খোঁজা রবার্তো ফিরমিনো। এই বদলি খুব একটা কাজে আসেনি। উল্টো ৮২ মিনিটে ব্রেন্টফোর্ডকে আবার সমতায় ফেরান ইয়োন ভিসা। ৪ মিনিট পর টনি ব্রেন্টফোর্ডকে জয় এনে দিয়েছেন বলেই মনে হয়েছিল। কিন্তু বল জালে জড়ালেও অফসাইডের কারণে সেটা আর গোলের মর্যাদা পায়নি।

এই ড্রয়ে একমাত্র দল হিসেবে প্রিমিয়ার লিগে অপরাজিত থাকল লিভার পুল। ১৩ পয়েন্ট পাওয়া ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসি, ইউনাইটেড ও এভারটনের চেয়েও এগিয়ে রইল। তবে আগামী পরশু ব্রাইটন ক্রিস্টাল প্যালেসকে হারাতে পারলে শীর্ষে উঠে যাবে দলটি।

সর্বাধিক পঠিত