প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাজস্থান রয়্যালসকে ৩৩ রানে হারিয়েছে দিল্লি ক্যাপিটালস

মাহিন সরকার: [২] মোস্তাফিজুর রহমানের নিখুঁত বোলিংয়ে লক্ষ্য নাগালে পেয়েছিল রাজস্থান রয়্যালস। কিন্তু ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতায় সহজ লক্ষ্য তাড়া করতে পারেনি রাজস্থান। আবুধাবিতে আগে ব্যাটিং করে দিল্লি ক্যাপিটালস ৬ উইকেটে ১৫৪ রান তোলে। জবাবে রাজস্থান ৬ উইকেটে ১২১ রানের বেশি করতে পারেনি। ৩৩ রানের আক্ষেপে পুড়ে নবম ম্যাচে পঞ্চম পরাজয়ের স্বাদ পেল তারা।

[৩] বৈচিত্রপূর্ণ বোলিংয়ে রানের চাকায় লাগাম টেনেছিলেন মোস্তাফিজুর রহমান। অধিনায়ক সানজু স্যামসনের যখনই উইকেট দরকার ছিল তখন তাকে বোলিংয়ে এনেছেন। মোস্তাফিজও হতাশ করেননি। নতুন বলে ইনিংসের প্রথম ওভার করে দিয়েছিলেন ৫ রান। এরপর ১২তম ওভারে ফিরে পান্তকে এবং ১৬তম ওভারে বোলিংয়ে এসে হেটমায়ারকে আউট করেন। ইনিংসের শেষ ওভারে খরচ করেন মাত্র ৭ রান।

[৪] ধারাবাহিক স্লোয়ার ও কাটারের সঙ্গে শনিবার ইয়র্কার করেছেন নিয়মিত। হেটমায়ারকে ইয়র্কারে বিট করার পর ওভারপিচ বলে আউট করেন। আবার রিশাভ পন্থকে কাটার দেওয়ার পরই স্লোয়ার বাউন্সার দিয়ে বোল্ড করেন। ৪ ওভারে দিয়েছেন মাত্র ২২ রান। কোনো বাউন্ডারি হজম করেননি। ডট বল ছিল ৬টি। ইনিংসের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত তার বোলিং টেম্পো ছিল দারুণ। কোনো জড়তা ছাড়াই লাইন ও লেন্থ ধরে রেখে বোলিং করেছেন।

[৫] মোস্তাফিজ নিশ্চিতভাবেই ছিলেন দলের সেরা বোলার। ৪ ওভারে ৩৩ রান দিয়ে ২ উইকেট নিয়েছেন চেতান শাকারিয়া। ব্যাট হাতে দিল্লির হয়ে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন শ্রেয়াশ আইয়ার। এছাড়া পান্ত ২৪ ও হেটমায়ার ২৮ রান করেন।

[৬] লক্ষ্য তাড়ায় রাজস্থানের হয়ে একাই লড়াই করেন সানজু স্যামসন। ৫৩ বলে ৮ চার ও ১ ছক্কায় ৭০ রান করেন তিনি। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ১৯ রান আসে মাহিপাল লোমোরের ব্যাট থেকে। রাজস্থানের হয়ে আজ খেলতে পারেননি ক্রিস মরিস ও এভিন লুইস। তাদের অভাব ভালোভাবেই টের পেয়েছে মোস্তাফিজের দল। – ক্রিকইনফো।