প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রেকর্ড পরিমাণ বেতনে বারোদায় ফিরলেন হোয়াটমোর

রাহুল রাজ :[২] আবারো বারোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনে ফিরলেন ডেভ হোয়াটমোর। ভারতের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পাবেন তিনি। হোয়াটমোর মাসখানেক আগে স্বেচ্ছায় নেপালের প্রধান কোচের দায়িত্ব ছেড়েছিলেন।

[৩] ২০২০ সালে এপ্রিল মাসে বারোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান কোচ ও পরিচালকের দায়িত্ব নিয়েছিলেন হোয়াটমোর। সেই চুক্তি ছিল দুই বছর মেয়াদী। তবে মাস ছয়েক যেতেই চাকরি হারিয়েছিলেন হোয়াটমোর।

[৪] বারোদার চাকরি হারানোর পরে ২০২০ সালের ডিসেম্বরে নেপাল জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান কোচের দায়িত্ব পান হোয়াটমোর। নেপালের দায়িত্ব নেওয়ার পরে তার লক্ষ্য ছিল ২০২২ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়ার জন্য নেপাল দলকে গড়ে তোলা। কিন্তু নেপালের সে লক্ষ্য পূরণ করার স্বপ্ন সময়ের সাথেসাথে ফিকে হয়ে যায়।

[৫] মাসখানেক আগে স্বেচ্ছায় নেপালের প্রধান কোচের পদ থেকে পদত্যাগ করেন হোয়াটমোর। আগামী ডিসেম্বর পর্যন্ত নেপালের প্রধান কোচের আসনে চুক্তিবদ্ধ ছিলেন তিনি। তবে চুক্তির আগেই পদত্যাগ করলেও হোয়াটমোরের সিদ্ধান্তকে সম্মান জানায় নেপাল ক্রিকেট বোর্ড। পদত্যাগের সময় হোয়াটমোর ‘ব্যক্তিগত কারণ’ দেখিয়েছিলেন।

[৬] নেপালের দায়িত্ব ছাড়ার একমাস না যেতেই আবার ভারতের ক্রিকেটে সেই বারোদা ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনেই ফিরলেন হোয়াটমোর। ২০২১-২২ মৌসুমের জন্য এই অভিজ্ঞ কোচকে চুক্তিবদ্ধ করেছে রঞ্জি ট্রফির দলটি। গতবারের মতোই এবারো একইসাথে পরিচালক ও প্রধান কোচের দায়িত্ব পেয়েছেন হোয়াটমোর।

[৭] এই চুক্তির মাধ্যমে ভারতের প্রথম শ্রেণির ক্রিকেট ইতিহাসে এক মৌসুমে সর্বোচ্চ বেতনের রেকর্ড গড়লেন হোয়াটমোর। ২০২১-২২ মৌসুমে কাজ করার জন্য তিনি পারিশ্রমিক হিসেবে পাবেন ১ কোটি ভারতীয় রুপি। ঘরোয়া ক্রিকেট নিয়ে ভারতের মহাপরিকল্পনার প্রমাণ হোয়াটমোরের এই চুক্তি।

[৮] আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিজ্ঞতায় টইটম্বুর একজন কোচ হোয়াটমোর। ১৯৯৫ সালে শ্রীলঙ্কার প্রধান কোচের দায়িত্ব নেওয়ার মাধ্যমে কোচিং ক্যারিয়ার শুরু করেন এই অস্ট্রেলিয়ান। ১৯৯৬ সালে তার অধীনে বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন হয় শ্রীলঙ্কা। তারপরে টেস্ট খেলেড়ু দেশের মধ্যে বাংলাদেশ, পাকিস্তান ও জিম্বাবুয়ের কোচিং করিয়েছেন তিনি। বাংলাদেশ ক্রিকেটের বদলে যাওয়ার গল্প শুরু হয় তার কোচিংকালেই।

[৯] অভিজ্ঞতার পাশাপাশি হোয়াটমোরের সাফল্যের পাল্লাও ভারী। ভারতের জাতীয় ক্রিকেট একাডেমি ও যুবদলের কোচের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতাও আছে হোয়াটমোরের। কোচ দায়িত্ব পালন করেছেন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ও পাকিস্তান সুপার লিগেও (পিএসএল)। – ক্রিকবাজ/ ক্রিকইনফো

সর্বাধিক পঠিত