প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বাংলাদেশ সাড়ে ৪ হাজার টন ইলিশ পাঠালেও সন্তুষ্ট নন কলকাতার ব্যবসায়ীরা

আসিফুজ্জামান পৃথিল: [৩] ‘কল্পতরু’ ঢাকার অবাস্তব শর্তে ইলিশ-আশা নিয়ে মহা শঙ্কায় মৎস্যপ্রিয় বাঙালি, এই শিরোনামে একটি সংবাদ করেছে কলকাতার জনপ্রিয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার। তাদের দাবি বাংলাদেশের ‘কঠিন’ শর্তে ইলিশ যাওয়া নিয়ে অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছে। ৪ অক্টোবর থেকে বাংলাদেশে ইলিশ ধরা নিষিদ্ধ, কারণ এটি মাছটির প্রজনন মৌসুম। তাই বলা হয়েছে, ৩ অক্টোবরের পর আর ইলিশ রপ্তানি করা যাবে না। এটিকেই ব্যবসায়ীদের করাত দিয়ে কঠিন শর্ত বলছে আনন্দবাজার।

[৪] এই বিষয়ে পশ্চিমবঙ্গ ফিশ ইমপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের সচিব সৈয়দ আনোয়ার মাকসুদ দিল্লিতে বাংলাদেশ হাই কমিশনার মোহম্মদ ইমরানের কাছে তদবির করেছেন। তার অনুরোধ, আপাতত ৩ অক্টোবর পর্যন্ত যা ইলিশ ঢোকার ঢুকুক। কিন্তু ২২ অক্টোবরের পরে ঢাকার ঘোষণা অনুযায়ী ধাপে ধাপে বাকি ইলিশও ঢুকতে দেওয়া হোক।

[৫] আনোয়ার বলেন, ‘ইলিশ বাজার এবং অবকাঠামোর যা অবস্থা, তাতে গড়ে দিনে এ পার বাংলায় বড়জোর ৫০ মেট্রিক টন পদ্মার ইলিশ ঢুকতে পারে। ৩ অক্টোবরের মধ্যে ঢাকার উপহারের সামান্য ইলিশই ঢুকতে পারবে!’

[৬] শুক্রবার কলকাতা বা রাজ্যের অন্যত্র ইলিশের দর ছিল সাইজ অনুযায়ী ৭০০-৮০০ থেকে ১২০০-১৩০০ রুপি কেজি। ঢাকার ইলিশ ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এ বার একেবারে ফার্স্টক্লাস ইলিশ ইন্ডিয়ায় যাচ্ছে। এত অল্প সময়ে অত ইলিশ পাঠানো সম্ভব নয়!’’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত