প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] লাফার্জ হোলসিমের ক্রাশিং চুনাপাথর খোলাবাজারে বিক্রি বন্ধের নির্দেশ

নুর উদ্দিন: [২] সুনামগঞ্জের ছাতকস্থ লাফার্জ হোলসিম সিমেন্ট কারখানা কর্তৃক ক্রাশিং চুনাপাথর খোলাবাজারে বিক্রি বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। শিল্প মন্ত্রণালয়ের এক চিঠিতে চুনাপাথর থেকে সিমেন্ট ও ক্লিংকার উৎপাদন ব্যতিত নতুন পণ্য এগ্রিগেট বা খোয়া উৎপাদন ও খোলাবাজারে বিক্রি অবৈধ বলে তা অবিলম্বে বন্ধ করার নির্দেশ দেয়া হয়। গত ১৬ সেপ্টেম্বর শিল্প মন্ত্রনালয়ের বিসিআইসি অধিশাখার উপসচিব মনিরুজ্জামান সাক্ষরিত এক চিঠি থেকে এসব তথ্য জানা যায়।

[৩] লাফার্জ হোলসিম সিমেন্ট কারখানার এক্সিকিউটিভ অফিসার/প্লান্ট ম্যানেজার বরাবর দেয়া উপ সচিবের এ চিঠিতে আরো বলা হয়, ভারত থেকে আমদানীকৃত চুনা পাথর থেকে সিমেন্ট ও ক্লিংকার উৎপাদন ব্যতিত কোম্পানীর অনুমোদিত লে-আউট প্লান বা বৈধ কাগজপত্র ছাড়া নতুন পণ্য চুনাপাথর এগ্রিমেন্ট বা খোয়া উৎপাদন বা বাজারজাতকরণ অবৈধ। চিঠিতে এসব ক্রাশিং চুনা পাথর সৃজন করে খোলাবাজারে বিক্রি করা অবিলম্বে বন্ধ করার জন্য লাফার্জ হোলসিম কর্তৃপক্ষকে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা হয়েছে।

[৪] ক্রসবর্ডার কনভেয়ার বেল্টের সাহায্যে লাফার্জ হোলসিম ভারত থেকে আমদানি করা চুনাপাথর খোলাবাজারে বিক্রি করায় ক্ষতিগ্রস্ত হন স্থানীয় পাথর ব্যবসায়ী ও আমদানিকারকরা। শিল্প কোটায় আনা চুনাপাথরের দাম খোলাবাজারে কম হওয়া প্রতিযোগিতায় টিকতে পারছিলেন না তারা।

[৫] এই প্রেক্ষিতে খোলাবাজারে চুনাপাথর বিক্রি বন্ধের দাবিতে আন্দোলনে নামে ছাতক ব্যবসায়ী-শ্রমিক ঐক্য পরিষদ। বিক্ষোভ, সমাবেশ, মানববন্ধন, নৌপথ অবরোধের কর্মসূচি পালন করে সংগঠনটি। লাফার্জের বিরুদ্ধে অধিকার আদায়ের আন্দোলনে সফল হওয়ায় সোমবার রাতে শহরের লাইমস্টোন ইম্পোর্টাস এন্ড সাপ্লায়ার্স গ্রপের কার্যালয়ে ব্যবসায়ী ও শ্রমিকদের মাঝে মিষ্টি বিতরণ করা হয়। এসময় সাবেক পৌর মেয়র আলহাজ্ব আব্দুল ওয়াহিদ মজনু, ব্যবসায়ী সৈয়দ আহমদ, ছাতক পাথর ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ফজলু মিয়া চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হাজী আবুল হাসান, পাথর ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সাধারণ সম্পাদক সামছু মিয়া, লাইমস্টোন ইম্পোর্টাস এন্ড সাপ্লায়ার্স গ্রপের সেক্রেটারী অরুন দাস, ইউপি চেয়ারম্যান কাজী আনোয়ার মিয়া আনু, পৌর কাউন্সিলর ইরাজ মিয়া, নাজিমুল হক, ব্যবসায়ী হাজী নুরু মিয়া তালুকদার, এলাইছ মিয়া চৌধুরী, হাজী সালেহ আহমদ, হাজী আলী আসকর সোহাগ, আব্দুল হাই আজাদ, হাজী সামছুল ইসলাম, কয়েছ আহমদ, হাজী বাবুল মিয়া, ফখর উদ্দিন স্বপন, সাইফুল ইসলাম মধু, সামছুর রহমান বাবুল, নেছার আহমদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

[৬] লাইমস্টোন ইম্পোর্টাস এন্ড সাপ্লায়ার্স গ্রুপের প্রেসিডেন্ট, ব্যবসায়ী-শ্রমিক ঐক্য পরিষদের আহবায়ক আহমদ শাখাওয়াত সেলিম চৌধুরী বলেন, মন্ত্রণালয়ের সিদ্ধান্তে স্থানীয় ব্যবসায়ী, আমদানিকারক ও শ্রমিকরা সন্তুষ্ট। ব্যবসায়ীরা বড় ধরনের অর্থনৈতিক বিপর্যয় থেকে রক্ষা পেয়েছেন।
লাফার্জ হোলসিমের কমিউনিকেশন অফিসার তৌহিদুল ইসলাম মন্ত্রণালয়ের চিঠি ২০ সেপ্টেম্বর প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে জানান, এ চিঠি আমাদের আইজীবীদের কাছে পর্যবেক্ষণের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। আইজীবীদের মতামতের উপর ভিত্তি করে আমরা আমাদের করনীয় নির্ধারন করবো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত