প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মেসিকে মাঠ থেকে তুলে দেয়ায় আলোচনায় পিএসজি কোচ পচেত্তিনো

স্পোর্টস ডেস্ক : [২] লিওনেল মেসি রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) প্যারিস সেন্ট জার্মেইর (পিএসজি) হয়ে মাঠে নেমেছিলেন। এটি ছিল ফ্রেঞ্চ দলটির ঘরের মাঠে আর্জেন্টাইন মহাতারকার প্রথম ম্যাচ। এর আগে লিগ ওয়ানে ও চ্যাম্পিয়নস লিগে একটি করে ম্যাচ খেললেও ছয়বারের ব্যালন ডি’ অর জয়ীর পা থেকে কোনও গোল এসেনি। এদিন প্যারিসের জার্সিতে প্রথম গোল করার বড় সুযোগও ছিল। যদিও তা শেষ পর্যন্ত আদায় করতে সক্ষম হননি। দল ম্যাচটি জিতে নিলেও মেসিকে মাঠ থেকে তুলে নেয়ায় আলোচনার কেন্দ্রে কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো।

[৩] পার্ক দে প্রিন্সেসে ৩২ মিনিটে নেইমারের বাড়ানো বল থেকেই গোল তুলে নিতে পারতেন মেসি। তবে প্রতিপক্ষের গোলরক্ষকের পায়ে লেগে তা বাইরে চলে যায়। ৩৬তম মিনিটে ফ্রি কিক নিয়েছিলেন ৩৪ বছর বয়সী এই ফরোয়ার্ড। এবার কপালকে দুষলেও পারেন মেসি। পোস্টে লাগার ফলে গোল তুলতে ব্যর্থ হন তিনি।

[৪] দীর্ঘদিন বার্সেলোনা ও আর্জেন্টিনার হয়ে পেনাল্টি নিয়ে আসছিলেন মেসি। এই ম্যাচে ৬০ মিনিটে তার বদলে নেইমারকে দেখা যায় স্পট কিক নিতে। ৭৫ মিনিটে লিওনেল মেসিকে বদলি করার সিদ্ধান্ত নেন। মাঠ ত্যাগের সময় সাইডলাইনে থাকা স্বদেশী কোচ পচেত্তিনো হাত বাড়ালেও মেসিকে এড়িয়ে যেতে দেখা যায়। সোজা বেঞ্চে বসে পড়েন তিনি। পিএসজির কোচের এমন সিদ্ধান্তে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে মেসি সমর্থকরা বেশ সমালোচনা করেছে। ম্যাচ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে কোচের মেসির ঘটনাটি সামনে চলে আসে।
পচেত্তিনোর ভাষায়, ‘মেসিকে বসানোর সিদ্ধান্ত ইনজুরি থেকে তাকে বাঁচানোর জন্য নেয়া হয়েছে। আমাদের ভবিষ্যৎ নিয়ে ভাবতে হয়। আগামী দিনে অনেক গুরুত্বপূর্ণ খেলা রয়েছে। তাকে রক্ষা করা আমাদের দায়িত্ব।’

[৫] নেইমার, এমবাপে, ডি মারিয়া ছাড়া চলতি মৌসুমে মেসি, সার্জিও রামোস, আচরাফ হাকিমি, গিনি উইনালডাম এবং জিয়ানলুইজি ডোন্নারুম্মাদের মতো তারকাদের দলে ভিড়িয়েছে পিএসজি। বিষয়টি মনে করিয়ে দিয়ে পচেত্তিনো বলেন, ‘এই সিদ্ধান্তগুলো দলের জন্যই নিতে হয়। সবাই জানে আমাদের দলে সেরা খেলোয়াড়রা রয়েছেন। আমাদের স্কোয়াডে ৩৫ জন আছেন। এদের মধ্যে থেকে ১১ জনকে মাঠে নামাতে হয়। সিদ্ধান্ত নেয়ার জন্য আমরা বেঞ্চের সামনে দাঁড়িয়ে থাকি। অনেক সময় এগুলো নিজেদের পক্ষে যায়, অনেক সময় এর বিপরীতটা হয়ে থাকে। – আরটিভি / মার্কা, সম্পাদনা : এল আর বাদল

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত