প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ‘অকাস’ ইস্যুতে ফ্রান্স ও ব্রিটেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বৈঠক বাতিল

রাশিদুল ইসলাম : [২] ব্রিটেনের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেন্সের সাথে ফ্রান্সের প্রতিরক্ষামন্ত্রী ফ্লোরেন্স পারলে’র বৈঠকটি পরবর্তী তারিখ পর্যন্ত বাতিল করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সাবেক ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত লর্ড রিকেট। রয়টার্স

[৩] ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বলেছেন, এই চুক্তিতে ফ্রান্সের চিন্তিত হবার কোন কারণ নেই। পারমানবিক সাবমেরিন তৈরির জন্য যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়া এই তিন দেশের মধ্যে নিরাপত্তা চুক্তির প্রেক্ষিতে ক্ষুব্ধ ফ্রান্স এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। গত সপ্তাহে চীনকে মোকাবিলায় প্রচলিত ১২টি পারমানবিক সাবমেরিন বানাতে ফ্রান্সের সাথে চুক্তি বাতিল করে অস্ট্রেলিয়া। এ ঘটনাকে পেছন থেকে ছুরি মারা বলে অভিহিত করেন ফ্রান্সের পররাষ্ট্র মন্ত্রী জেন ইয়েভেস লা ড্রিয়ান।

[৪] এর আগে ত্রিদেশীয় নিরাপত্তা চুক্তির ভয়ঙ্কর পরিণতির আশঙ্কায় ওয়াশিংটন ও ক্যানবেরায় নিযুক্ত ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূতদের তলব করা হয়। চীনকে মোকাবিলায় সম্প্রতি একটি নিরাপত্তা চুক্তি ঘোষণা করে যুক্তরাজ্য, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়া। নতুন এ চুক্তি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্র ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে টানাপোড়েন শুরু হয় ফ্রান্সের। ত্রিদেশীয় চুক্তির ফলে অস্ট্রেলিয়া ফ্রান্সের নকশায় সাবমেরিন তৈরির একটি চুক্তি বাতিল করে।

[৫] ‘অকাস’ চুক্তির আওতায় অস্ট্রেলিয়াকে পারমাণবিক শক্তিচালিত সাবমেরিন অর্জনে সহযোগিতা করা হবে। এর মাধ্যমে যুক্তরাষ্ট্র গত পঞ্চাশ বছরে যুক্তরাজ্যের বাইরে প্রথম তার সাবমেরিন প্রযুক্তি অন্য কাউকে দিতে যাচ্ছে। মূলত বিরোধপূর্ণ দক্ষিণ চীন সাগরে বেইজিংয়ের প্রভাব কমাতেই এই চুক্তি বলে ধারণা করা হচ্ছে।

[৬] এ চুক্তির কঠোর সমালোচনা করেছে চীন। একে ‘চরম দায়িত্বজ্ঞানহীন’ ও ‘সংকীর্ণ মানসিকতা’ হিসেবে মন্তব্য করেছে বেইজিং। চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বলেছে, এই জোট গঠনের কারণে আঞ্চলিক শান্তি বিঘ্নিত হতে পারে।

সর্বাধিক পঠিত