প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ডা. মুশতাক হোসেন বললেন, শনাক্ত রোগীদের ব্যবস্থাপনার আওতায় আনা গেলে সংক্রমণের পরবর্তী ঢেউ বিলম্বিত করা যাবে

আমিরুল ইসলাম : [২] দেশে আবারও সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কা খুব ভালোভাবেই আছে [৩] রোগতত্ত¡, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) উপদেষ্টা ও সাবেক প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. মুশতাক হোসেন বলেন, এখন যতো রোগী শনাক্ত হবে, প্রত্যেককে ব্যবস্থাপনায় আনতে হবে। যার মধ্যেই জ¦র-কাশি পাওয়া যাবে, তাদের করোনা টেস্টের আওতায় আনতে হবে।

[৪] যতোদিন পৃথিবীতে করোনা মহামারি নিয়ন্ত্রণ না হবে, ততোদিন পর্যন্ত সংক্রমণ কমে গিয়ে আবার বাড়ার আশঙ্কা আছে। [৫] দেশে শতকরা ৮ ভাগ মানুষকে টিকার আওতায় আনা সম্ভব হয়েছে, তাদের নিশ্চিতভাবে এন্টিবডি তৈরি হয়েছে। টিকা সংক্রমণ প্রতিরোধের চেয়ে গুরুতর অসুস্থ হওয়া থেকে আমাদের সুরক্ষিত করছে।

[৬] সামান্য লক্ষণযুক্তভাবে যারা করোনা সংক্রমিত হয়েছে তাদের মধ্যে সবচেয়ে কম প্রতিরোধ ক্ষমতা হয়েছে। যাদের লক্ষণ অনেক বেশি ও গুরুতর অসুস্থ ছিলো তাদের মধ্যে প্রতিরোধ ক্ষমতা বেশি হয়েছে। আবার তাদের ক্ষতিটাও অনেক বেশি।

[৭] দেশের অধিকাংশ মানুষ এখনো সংক্রমণের বাইরে আছে। দেশের ৪০ শতাংশ লোক সংক্রমিত হলেও সেখানে টিকা পেয়েছে প্রায় ৮ শতাংশ। শতকরা ৭০-৮০ ভাগ লোককে টিকার আওতায় আনতে হবে।

[৮] আমাদের বঞ্চিত করে আমেরিকা ও ইউরোপে অনেক বেশি টিকা দেওয়া হলেও সেখানে এখনো সংক্রমণ বাড়ছে। কিন্তু সংক্রমণ বাড়লেও মৃত্যুর সংখ্যাটা নিয়ন্ত্রণের মধ্যে আছে। করোনা সংক্রমণ থেকে বাঁচার পরিস্থিতি এখনো পৃথিবীর কোথাও তৈরি হয়নি।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত