প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১]টি-২০ বিশ্বকাপ ২০২১ এ সবচেয়ে তরুণ বাংলাদেশ দল

রাহুল রাজ :[২] বাংলাদেশ বিশ্বকাপ দলে আছেন এমন ৭ ক্রিকেটার, যারা প্রথমবার টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ খেলছেন। এবারের বিশ্বকাপে অংশগ্রহণ করা ১৬ দেশের মধ্যে সবচেয়ে কম বয়সের গড় বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের।

[৩] স্কোয়াডে তরুণ খেলোয়াড়দের আধিক্য এতটাই বেশি যে মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান এবং অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের পরে বয়সে সবচেয়ে সিনিয়র ক্রিকেটার ২৮ বছরের সৌম্য সরকার। বাংলাদেশী ক্রিকেটারদের গড় বয়স মাত্র ২৬.৮৭ বছর।

[৪] বাংলাদেশ দলে আছেন সর্বশেষ অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপজয়ী দুই ক্রিকেটার। ২০ বছর বয়সী শরীফুল ইসলামের সঙ্গে থাকছেন ২১ বছর বয়সী শামীম পাটোয়ারী। প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপ দলে সুযোগ পাওয়া মোহাম্মদ নাঈম ও আফিফের বয়স ২৩ বছরের নিচে।

[৫] বিশ্বকাপ দলের আরেক অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিনের বয়সও ২৫ পেরোয়নি। লিটন দাস, মেহেদী হাসান, নাসুম আহমেদ, মোস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন আহমেদের বয়স ২৬ বছর। দলে তিন খেলোয়াড়ের বয়স ৩০ বছর ছাড়িয়েছেÑ সাকিব, মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ।

[৬] বাংলাদেশের পরের অবস্থানে থাকা আয়ারল্যান্ডের ক্রিকেটারদের বয়সের গড় ২৭.১৩। এরপর বয়সের বিচারে বেশি নামিবিয়ার। তাদের খেলোয়াড়দের গড় বয়স ২৭.২৬। চতুর্থ অবস্থানে আছে শ্রীলঙ্কা। তাদের খেলোয়াড়দের বয়সের গড় ২৭.২৮। বাছাই পর্বের আর দুই দল স্কটল্যান্ড ও ওমানের বয়স অবশ্য বেশি।

[৭] ইংলিশ ক্রিকেটারদের গড় বয়স ৩১.২৬ বছর। টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলও বেশ অভিজ্ঞ। দলে থাকা গেইল-ব্রাভোদের গড় বয়স ৩১.১৩ বছর। অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেটারদের গড় বয়সও ৩০ বছরের কিছু বেশি। বয়সে ভারত ও নিউজিল্যান্ড অবশ্য অস্ট্রেলিয়া ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের তুলনায় কিছুটা পিছিয়ে। এ দুই দলের ক্রিকেটারদের গড় বয়স ২৯ বছর। বিশ্বকাপের বাকি দলগুলোর মধ্যে পাকিস্তানের ক্রিকেটারদের গড় বয়স ২৭.৩৩ বছর এবং দক্ষিণ আফ্রিকার ২৯ বছরের বেশি।

[৮] এবারের বিশ্বকাপে সবচেয়ে কম বয়সী ক্রিকেটার হলেন আফগানিস্তানের ওপেনার রাহমানুল্লাহ গুরবাজ। বয়স ১৯ বছর ২৯০ দিন। এই তালিকায় তিনজনের ভেতর আছেন পাকিস্তানের ওয়াসিম জুনিয়র ও বাংলাদেশের শরিফুল ইসলাম। দুজনরই বয়স ২০ বছর। বিশ্বকাপে সবচেয়ে বুড়ো ক্রিকেটার ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইল, বয়স ৪২ । সম্পাদনা: হাসান হাফিজ

সর্বাধিক পঠিত