প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] ডায়াবিটিস নিয়ন্ত্রে রাখবে তুলসি

হ্যাপি আক্তার: [২] ওষুধী গুণে গুণান্বিত তুলসী গাছ প্রায় বাড়িতেই লক্ষ্য করা যায়। মোটামুটি সবাই গাছটির ভেষজ গুন সম্পর্কে জানে এবং ছোটখাট অসুখে বাড়িতে বসেই এ গাছের পাতা দিয়ে টুকটাক ওষুধ বানিয়ে নেয়।তুলসী অর্থ যার তুলনা নেই। তুলসী এর ইংরেজি নাম Holy basil এবং Ocimum basilicum Linn হচ্ছে এর বৈজ্ঞানিক নাম।

[৩] সর্দি-কাশি থেকে বাঁচতে তুলসি পাতার উপর ভরসা রাখেন অনেকেই। প্রাচীনকাল থেকেই এই পাতা নানা রোগ থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য ব্যবহার করা হয়। বর্তমানে একটি সমীক্ষা বলছে তুলসি পাতা খেলে ডায়াবিটিস নিয়ন্ত্রণে রাখা সম্ভব।

[৪] নটিংহ্যাম বিশ্ববিদ্যালয়ে হওয়া এই সমীক্ষা টাইপ টু ডায়াবিটিসে আক্রান্ত রোগীদের উপর করা হয়। এদের মধ্যে ৫০ শতাংশকে ডায়াবিটিসের ওষুধ খেতে বলা হয়, বাকিদের তার বদলে রোজ দেওয়া হয় ২৫০ মিলিগ্রাম তুলসির নির্যাসযুক্ত ক্যাপসুল। সমীক্ষা শেষে দেখা যায়, ইনসুলিন ও ওষুধের উপর নির্ভর না করে কেবল তুলসি খেয়েই রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখতে সক্ষম হয়েছেন তাঁরা। কাজেই ইনসুলিনের ক্ষরণে তুলসির যে ভূমিকা আছে তাতে আর সংশয় থাকে না।

১) তুলসি পাতা ভাল করে ধুয়ে নিয়ে চিবিয়ে খেতে পারেন। এর ফলে তুলসিতে থাকা যাবতীয় গুরুত্বপূর্ণ ভেষজ গুণ সহজেই আপনার শরীরে প্রবেশ করবে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও তুলসির কোনও জুড়ি নেই।

২) দিনে অন্তত একবার তুলসি পাতা দিয়ে চা বানান। পানি গরম করে তাতে কয়েকটি তুলসি পাতা ফুটতে দিন। মিনিট তিনেক পর সেই পানি ফুটে উঠলে ছেঁকে পান করুন।

৩) তুলসি পাতা ভেজানো পানিও শরীরের জন্য উপকারি। রাতে এক গ্লাস পানিতে তুলসি পাতা ভিজিয়ে পরের দিন সকালে সেই তুলসি ভেজানো পানি খেয়ে নিন।

৪) অনেক সময়ে রান্নাতেও তুলসি পাতা ব্যবহার করা যায়। যে ধরনের রান্নায় তুলসি পাতা দিলে স্বাদ বাড়বে, সেই রকম রান্নায় তুলসি পাতা দিন। আনন্দবাজার অনলাইন

সর্বশেষ