প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সুনামগঞ্জে কৃষকের আমন চাষের শেষ পর্যায়ে চারার সংকট

নুর উদ্দিন: [২] সুনামগঞ্জে এবার দীর্ঘস্থায়ী বন্যা না হওয়ায় আমন চাষাবাদ লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী যথাসময়ে শেষ হওয়ার আশাবাদ করছেন সংশ্লিষ্টরা। এ বছর ৮১ হাজার ২০ হেক্টর জমিতে আমন লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

[৩] ইতোমধ্যে গত সোমবার পর্যন্ত ৯০ ভাগ জমিতে ধান লাগানো শেষ। এ বছর বিআর ৪৯, বিআর ২২ এর পাশাপাশি দেশীয় ও উফশি ধান চাষাবাদ করেছেন কৃষক। কৃষক পর্যায়ে সরকারি বীজের চাহিদা বেশি থাকলেও এবার মাত্র ১ হাজার ৪শ কৃষককে ৫ কেজি করে আমন বীজ দিয়েছে কৃষি বিভাগ। ফলে অনেক কৃষকের চাহিদা থাকলেও বীজ সংগ্রহ করতে পারেননি।

[৪] এদিকে কিছু এলাকার কৃষকের বীজতলা লাগানোর সময় পাহাড়ি ঢলে ভেসে যাওয়ায় তারা চারা সংকটে আছেন। এবার অন্য কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ না হলে বাম্পার ফলনের আশাবাদ কৃষকরা।

[৫] ছাতক উপজেলার হলদিউরা গ্রামের কৃষক আনামুল হক বলেন, বেশ কয়েকবার পাহাড়ি ঢলের কারণে চারা লাগিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত আমাদের এলাকার কৃষক। কারণ দীর্ঘ মেয়াদী বন্যা না হলেও কয়েকবার খণ্ডকালীন পাহাড়ি ঢল বীজ ফেলার সময় ভাসিয়ে নিয়েছে। এতে কিছু কৃষক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। এখন তারা হন্যে হয়ে পার্শবর্তী সিলেট জেলা থেকে চারা সংগ্রহ করে জমি চাষ করেছেন। প্রতি শতাংশ চারা সংগ্রহ করতে খরচ হচ্ছে ১২০০-১৫০০ টাকা।

[৬] সুনামগঞ্জ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মো. ফরিদুল হাসান বলেন, চলতি আমন মৌসুমে আমনের কোন ক্ষয়-ক্ষতি হয়নি। এর আগের বার চারবারের টানা বন্যার কারণে ব্যাপক ক্ষতি হয়েছিল। তিনি বলেন, এ বছর ভালো করে বর্ষাই হয়নি। তাই স্বস্তিতে আমনধান চাষ করতে পেরেছেন কৃষক। আগামী সপ্তাহ পর্যন্ত আমন ধানের কিছু প্রজাতি লাগানো যাবে। সম্পাদনা: সঞ্চয় বিশ্বাস

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত