প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] আফগানিস্তানে নিষিদ্ধ হচ্ছে নারীদের খেলাধুলো ও তালিবান বিরোধী বিক্ষোভ

লিহান লিমা: [২] কাবুল দখলের পর সংবাদ সম্মেলনে সমতা এবং অর্ন্তভূক্তিমূলক শাসন ব্যবস্থার প্রতিশ্রুতি দেয়া তালিবানের খোলস উন্মেচিত হয়ে পড়ে যেদিন নারীরা কাবুলের রাস্তায় অধিকার, প্রতিনিধিত্ব এবং সমাজে তাদের ভূমিকার দাবীতে বিক্ষোভ করে। বিক্ষোভে লাঠিচার্জ, গুলি ও টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপ করা হয়। গার্ডিয়ান

[৩] বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় থেকে জারি করা এক ডিক্রিতে বলা হয়েছে, যে কোনো বিক্ষোভোর আগে অনুমতি নিতে হবে অন্যথায় কঠোর আইনী পরিণতির সম্মুখীন হতে হবে। ইসলামী আমিরাত বিরোধী বিক্ষোভ ও স্লোগান দেয়া যাবে না।

[৪] বৃহস্পতিবার অস্ট্রেলিয়ার এসবিএস নিউজকে দেয়া সাক্ষাতকারে তালেবানের সাংস্কৃতিক কমিশনের ডেপুটি হেড আহমাদুল্লাহ ওয়াসিক বলেছেন,‘ নারীদের খেলাধুলা করা অত্যাবশ্যক নয় এবং এটি যথাযথও নয়। নারীদের ক্রিকেট খেলার অনুমতি দেয়া হবে না কারণ এতে মুখ এবং শরীর ঢাকা থাকে না। এটা গণমাধ্যমের যুগ, ক্রিকেটে ছবি তোলা এবং ভিডিও করা হয় যা মানুষ সরাসরি দেখবে। ইসলামে নারীদের এভাবে থাকার বিধান নেই। ইসলামী আমিরাত আফগানিস্তানে নারীদের খেলাধুলা সম্পূর্ণরুপে নিষিদ্ধ করা হবে।’

[৫] মঙ্গলবার তালেবান নতুন সরকারের রুপরেখা তালেবান প্রকাশ করে যেখানে ১৪জন ছিলেন ১৯৯৬-০১ শাসনের সময় তালেবানের সাবেক কর্মকর্তা, পাঁচজন সাবেক গুয়ানতানামো বন্দী, এফবিআইয়ের মোস্ট ওয়ান্টেড এবং জাতিসংঘের কালো তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী। নারী বিষয়ক মন্ত্রণালয় বাদ দেয়া হয়। মন্ত্রীপরিষদের বেশিরভাগই ছিলেন সংখ্যাগরিষ্ঠ পশতুন জাতিগোষ্ঠির, তাজিক ও হাজারা গোষ্ঠির মাত্র একজন প্রতিনিধি ছিলেন, যারা উভয়ই তালিব। নারীরা মন্ত্রী কিংবা উপমন্ত্রীর পদেও ছিলেন না।

[৬] সরকার গঠনের পর ভারপ্রাপ্ত প্রধানমন্ত্রী মোল্লা মোহাম্মদ হাসান আখুন্দ পালিয়ে যাওয়া সাবেক প্রশাসনের কর্মকর্তাদের দেশে ফিরে আসার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, দলটি তাদের নিরাপত্তা ও নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেবে। তিনি আরো বলেন, ‘আমরা এই অঞ্চল এবং এর বাহিরের দেশগুলোর সঙ্গে ইতিবাচক ও শক্তিশালী সম্পর্ক প্রতিষ্ঠা করতে চাই। তত্ত্বাবধায়ক সরকার কূটনৈতিক, দূতাবাস এবং ত্রাণ সংস্থাগুলোর নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেবে।’ আল জাজিরা

 

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত