প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গত মৌসুমে জুভেন্টাসের ক্ষতি প্রায় ১৯১ মিলিয়ন ইউরো

স্পোর্টস ডেস্ক : [২] বড় দুঃসময়ের মধ্যে যাচ্ছে ইতালিয়ান ক্লাব জুভেন্টাস। আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ ক্রমেই বেড়ে চলেছে। ২০-২১ মৌসুমেই তাদের ক্ষতি হয়েছে ১৯০.৭ মিলিয়ন ইউরো। যা আগের মৌসুমের চেয়ে দ্বিগুণ। সম্প্রতি ইতালির অর্থনীতি বিষয়ক দৈনিক ক্যালসিও ফিনানজা জানিয়েছে এ তথ্য।

[৩] মূলত জুভেন্টাসের মূল প্রতিষ্ঠান এক্সর টুডে থেকে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সংবাদ প্রকাশ করেন ক্যালসিও ফিনানজা। ২০১৯-২০ সালে দলটির ক্ষতির পরিমাণ ছিল ৮৯.৭ মিলিয়ন ইউরো। সেখানে নানা কারণে গত বছর এ পরিমাণ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৯০.৭ মিলিয়ন ইউরোতে।

[৪] তবে এ ক্ষতির পরিমাণ বাড়তে পারতো আরও। গত মৌসুমের প্রথম ছয় মাসেই তাদের ক্ষতির পরিমাণ ছিল ১১৩.৭ মিলিয়ন ইউরো। তবে পরে স্টেডিয়ামগুলো খুলে দেওয়ায় কিছুটা ঘাটতি পূরণ হয়েছে তাদের। মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে সবচেয়ে বড় ক্ষতিটা হয়ে গেছে তাদের। স্টেডিয়ামগুলো বন্ধ থাকায় মাঠে দর্শক যেতে পারেনি। পাশাপাশি চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলো থেকে বিদায়ের কারণে উয়েফা থেকে প্রাপ্ত আয় কমে যায় দলটির। একই সঙ্গে টানা নয় মৌসুম পর সিরিআর শিরোপা হাতছাড়া করেছে গত মৌসুমেই।

[৫] অথচ ইতালিতে একমাত্র দল জুভেন্টাস যাদের নিজস্ব কোনো স্টেডিয়াম রয়েছে। ফলে অন্য ক্লাবের তুলনায় টিকেট বিক্রি করে অনেক বেশি আয় করে তারা। তবে মহামারির কারণে এ আয়ের পরিমাণ কমে যায় অনেকাংশেই। এখনও স্টেডিয়ামের ধারণ ক্ষমতার ৫০ শতাংশ দর্শক পূর্ণ করার অনুমতি রয়েছে।

[৬] এ নিয়ে টানা ষষ্ঠ মৌসুমে আর্থিক ক্ষতি দেখছে দলটি। ২০১৫/১৬ সালে প্রথম ৪ মিলিয়ন ইউরো ক্ষতি হয় তাদের। এরপর থেকে এর পরিমাণ বাড়তে থাকে। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ভালো কিছু আয় বাড়ানোর লক্ষ্যে ২০১৮ সালে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে দলে টেনেছিল তারা। কিন্তু তাতে ক্ষতির পরিমাণ বেড়ে যায় আরও। আগের তিন মৌসুমে দুইবার ফাইনাল খেলা দলটি এরপর আর কোয়ার্টারের গণ্ডি পেরুতে পারেনি। – ডেইলিস্টার

সর্বাধিক পঠিত