প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোন দিকে মোড় নেবে কারামুক্ত পরীমণির ক্যারিয়ার

ইমরুল শাহেদ: কারামুক্ত পরীমণির ক্যারিয়ার কেমন হবে, দর্শক তাকে কিভাবে নিবে বা তিনি কিভাবে তার ক্যারিয়ার শুরু করবেন সেটাই এখন চলচ্চিত্রশিল্পের আলোচ্য বিষয়। পরিচালক রাশিদ পলাশ বলেছেন, পরীমণি মুক্তি না পাওয়া পর্যন্ত ‘প্রীতিলতা’ ছবির কাজ শুরু হবে না। প্রয়োজনে তারা নায়িকার প্যারোলে মুক্তি চাইবেন। কিন্তু প্যারোলের আর প্রয়োজন হয়নি। এখন বিনা বাধায় প্রীতিলতার কাজ শুরু হতে পারে।

পরিচালক সমিতি ইতোমধ্যে তাদের অবস্থান পরিস্কার করেছে। তারা পরীমণিকে চলচ্চিত্রের সন্তান হিসেবে উল্লেখ করেছেন। প্রযোজক, পরিবেশক ও পরিচালক খোরশেদ আলম খসরু বলেছেন, পরীমণির ব্যাপারে তারা শুধু একতরফাভাবে প্রশাসনের বক্তব্যই শুনেছেন। পরীমণির বক্তব্য শোনা হয়নি। সব কিছুর উপরে পরীমণি চলচ্চিত্রের মানুষ। তবে তিনি বলেছেন, তার ক্যারিয়ারে তেমন কিছু হবে না।

পরিচালক অপূর্ব রানা বলেছেন, ‘আমাদের ইন্ডাষ্ট্রিতে এর চাইতেও বড় সব ঘটনা ঘটেছে। তাদের যখন কিছু হয়নি, পরীমণিরও কিছু হবে না।’ পরিচালক সমিতির সভাপতি সোহানুর রহমান সোহান বলেছেন, ‘আমরা আশা করছি নতুন একজন পরীমণিকেই পাব।’ পরিচালক কাজী হায়াত বলেছেন, ‘পরীমণি যদি সংশোধন হয়ে নতুনভাবে কাজ শুরু করেন তাহলে তিনি হবেন এদেশের প্রথম সারির এক নাম্বার তারকা।’ পরীমণি গ্রেপ্তার হওয়ার পর তার প্রতি চলচ্চিত্রশিল্পের একটা নেতিবাচক মনোভাব লক্ষ্য করা গিয়েছিল। কিন্তু শিল্পী সমিতি তার সদস্যপদ স্থগিত করার পর সকলের মনোভাব পরীমণির প্রতি ইতিবাচক হয়ে উঠে। সকলে পেতে চান সংশোধিত নতুন এক পরীমণিকে, যিনি চলচ্চিত্রশিল্পের জন্য একজন নির্ভরশীল তারকা হয়ে উঠবেন। তাকে বেপরোয়া মনোভাবও পরিহার করতে হবে।

পরীমণির কারামুক্তির জন্য অপেক্ষা করছিলেন বেশ কয়েকজন প্রযোজক ও পরিচালকও। এর মধ্যে সরকারি অনুদানের ছবিও রয়েছে। বর্তমানে চলচ্চিত্রশিল্পে চলছে নির্ভরশীল তারকার অভাব। এক সময় যাদের ছবিতে নিলে ছবির ব্যবসা নিয়ে ভাবতে হতো না, তারাও এখন অনেকটা অচল হয়ে পড়েছেন। দর্শক কাউকেই নিজের তারকা মনে করতে পারছেন না। পরীমণির ব্যাপক পরিচিতি আছে। এই পরিচিতিকে কিভাবে জনপ্রিয়তা ও চাহিদায় পরিণত করা যায়, সে বিষয়ে পরীমণি সচেতন হবেন বলে অনেকে মনে করেন।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত