প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণ হলে ভালো হবে, সাংসদ মোছলেম উদ্দীন

রিয়াজুর রহমান রিয়াজ: [২] সিআরবিতে বেসরকারি হাসপাতাল নির্মাণ করা নিয়ে চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও চট্টগ্রাম ৮ আসনের সংসদ সদস্য মোছলেম উদ্দীন আহমদ এমপি আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছায় চট্টগ্রামের রেলওয়ের ভূমিতে পিপিপির মাধ্যমে সিআরবি এলাকায় একটি হাসপাতাল নির্মানের প্রকল্প গ্রহণ করে রেলওয়ে কতৃপক্ষ। যেখানে বর্তমানে কিছু ঝুপড়ি ঘর ও দোকানপাট রয়েছে। সেখানে হাসপাতাল করা হলে দোষ কি?

[৩] তিনি বলেন কিছু সার্থানেস্বী মহল এভারকেয়ার, ইমপেরিয়াল,পার্কভিউ সহ বিভিন্ন হাসাপাতাল মালিকদের ইন্দনে সিআরবি তে হাসপাতাল নির্মাণের বিরোধিতা করছে-যা কোনোভাবেই কাম্য নয়।

[৪] তিনি আরও বলেন, এক শ্রেণির লোক কিছু না-বুঝেই হীন স্বার্থে হাসপাতাল নির্মানে বিরোধিতা করে যাচ্ছে, এই এলাকায় সিএনজি ফিলিং ষ্টেশন করা হয়েছে তখন বিরোধিতা করা হয়নি, উন্মুক্ত বিশ্ববিদ্যালয় করা হয়েছে তখন বিরোধিতা করা হয়নি কেন? এখন হাসপাতাল নির্মানের বিরোধিতা করা মানে শেখ হাসিনার বিরোধীতা করা।

[৫] শনিবার (২৮ আগস্ট ) দুপুরে চট্টগ্রাম সম্মিলিত কর আইনজীবী সমন্বয় পরিষদ আয়োজিত জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিল ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব মন্তব্য করেন।

[৬] এসময় মোছলেম উদ্দীন আরো বলেন, উন্নয়ন এবং পরিবেশ একসাথে হয় না, উন্নয়নের সার্থে পরিবেশের বিষয় ছাড় দিতে হবে। আমরা বঙ্গবন্ধুকে হারিয়েছি তার কন্যা শেখ হাসিনা বাংলাদেশের দায়িত্ব নিয়েছে আমরা তার হাতকে শক্তিশালী করতে একসাথে কাজ করতে হবে।

[৭] সম্মিলিত কর আইনজীবী সমন্বয় পরিষদের সভাপতি আলহাজ্ব বদিউজ্জামানের সভাপতিত্বে সভায় বিশেষ অথিতি ছিলেন, বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের এডহক কমিটির সদস্য এডভোকেট মজিবুল হক, চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট এএইচ এম জিয়া উদ্দীন, চট্টগ্রাম কর আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুর হোসেন প্রমূখ।

[৮] উল্লেখ্য, সিআরবিতে হাসপাতাল নির্মাণের বিরোধীতা করে নিয়মিত নানা কর্মসূচি পালন করে আসছে সাম্প্রতিক সময়ে গড়ে উঠে চট্টগ্রাম নাগরিক সমাজসহ বেশ কয়েকটি সংগঠন। তাদের আবার বেশিরভাগই সরকার দলীয় নেতাকর্মী। শুরু থেকেই প্রধানমন্ত্রী

[৯] শেখ হাসনিার নেওয়ার এই প্রকল্পের পক্ষে অবস্থান নিয়েছেন চট্টগ্রামের সাবেক মেয়র ও নগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আ জ ম নাছির উদ্দীন। এছাড়া পিপিরি আওতায় নির্মাণাধীণ হাসপাতালটির নামকরণ করা হচ্ছে বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের নামে। এই হাসপাতাল নির্মাণ উদ্যোগ নিয়েছে খোদ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত