প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রবিউল আলম:  বিশ্ব একক নেতৃত্বের অধিকারী নয়, তালেবানও একক হুকুমদাতা নয়, পানশির বিদ্রোহীরা প্রমাণ দিচ্ছেন

রবিউল আলম: নেতৃত্ব প্রতিষ্ঠার জন্য লক্ষ্য স্থির করতে হয়, নিজস্ব মতকে জাতির লক্ষ্য অর্জনের মাধ্যম হতে হয়। জাতিগোষ্ঠী, ধর্ম-বর্ণের মানুষের মাঝে প্রতিষ্ঠা করতে পারলেই একটি রাষ্ট্রের সফলতা অর্জন হয়। সফল রাষ্ট্রের জাতির পিতার আসনে আপনাকে প্রতিষ্ঠা করবে জনগণ, নেতৃত্বের জন্য। বাঙালির মুক্তির মহানায়ক জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, শান্তি ও উন্নয়নের প্রতীক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মাও-সে তুং, মহাত্মা গান্ধী, জর্জ ওয়াশিংটন-সহ যারা স্বাধীনতার নেতৃত্ব দিয়েছিলেন, জাতির জন্য রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করেছেন, তাঁরা ইতিহাস অমর। তালেবানের লক্ষ্য কী? ক্ষমতা আর ভাগবাটোয়ারা ছাড়া কী! বিশ্ব মোড়লদের চাহিদা ও লক্ষ্য স্থির করতে হয়েছে বলেও প্রতিয়মান নয়। বিশ্বশান্তির জন্য লড়ছেন, নাকি নিজেদের অস্ত্র বিক্রির মাধ্যম বানিয়েছেন আফগানদের।

১৭শ সাল থেকেই লড়াই হচ্ছে আফগানিস্তানে, জয় পরাজয় নেই। ব্রিটিশ, সোভিয়েত ইউনিয়ন, আমেরিকা-সহ সবাই ভাগবাটোয়ারার অংশ হতে চেয়েছেন। ক্ষমতার অংশ হতে চান আফগান উপজাতিরা। আফগানিস্থানের শান্তি কেউ চেয়েছেন বলে প্রতিয়মান হচ্ছে না। আমরা সবাই রাজা, আমাদের এই রাজার রাজত্বে। আফগানদের দশাও তাই। তালেবানরা ক্ষমতার দারপ্রান্তে, এনআরএফ পানশির উপত্যকায়। তাজিকিস্তান খাদ্য ও অস্ত্র সহায়তায়। তালেবান বিজয়ে আমেরিকার আধুনিক মারণাস্ত্র নিরব থাকলেও আহমেদ শাহ মাসুদের ছেলে আহমদ মাসুদের তীর-ধনুক নিরব নয়।

আফগান সরকারের ভাইস প্রেসিডেন্ট আমরুল্লা সালে দেশ ছাড়েননি। ইতোমধ্যে লাখো তালেবানবিরোধী একটু ছাঁয়ার আশায় পানশির উপত্যকায় আশ্রয় গ্রহণ ও যুদ্ধের জন্য প্রশিক্ষণ শুরু করেছে। আর কত শত বছর আফগান যুদ্ধ চলবে, জানি না। তবে তালেবান কখনো ঐক্যমতের স্থায়ী সরকার প্রতিষ্ঠা করতে পারবে না, তা আমি হলফ করে বলতে পারি। একক ধর্ম, একক মত, একক পুরুষ নিয়ে এই পৃথিবী জন্ম হয়নি। নারীকে পর্দায় বন্দী করে, সংস্কৃতিকে ধ্বংস করে, ইতিহাস বিকৃত করে, শক্তি প্রদর্শন করে আফগানিস্থান তালেবান রাষ্ট্র হতে পারে না। পানশির উপত্যকার থেকে কী একজন বঙ্গবন্ধুর জন্ম হতে পারে বিশ্বশান্তির প্রতিনিধি হতে? আমরা আশায় থাকলাম। লেখক : মহাসচিব, বাংলাদেশ মাংস ব্যবসায়ী সমিতি

সর্বাধিক পঠিত