প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] তালায় অসময়ে তরমুজ চাষ, সফল কৃষকেরা

সব্যসাচী মজুমদার: [২] সাতক্ষীরার তালায় কৃষকের মাচায় ঝুলছে আবরনে হলুদ ভেতরে লাল টকটকে স্বাদে মিষ্টি ও সুস্বাদু তরমুজ। অসময়ের তরমুজ বলে দামেও বেশ চড়া।

[৩] দৃষ্টিনন্দন অমৌসুমী ফসলের চাহিদা বেশি হওয়ায় দিন দিন এ জাতের তরমুজ চাষ বৃদ্ধি হচ্ছে। উপজেলার পাটকেলঘাটা থানার মিঠাবাড়ি, নগরঘাটা, আলিপুর, সেনেরগাতি, ফুলবাড়ি গ্রামে প্রায় ৫ বিঘা জমিতে ব্লাকবেবী, মধুমালা, ইয়োলোবার্ড জাতের তরমুজ চাষ করা হচ্ছে।

[৪] তালার ফুলবাড়ি গ্রামের কৃষক কালাম শেখ বলেন, ৮ কাঠা জমিতে এ বছরই প্রথম হলুদ তরমুজের চাষ করেছি। ৫০ দিন আগে বেসরকারি সংস্থা উন্নয়ন প্রচেষ্টার কৃষিবিদ নয়ন হোসেনের থেকে বীজ সংগ্রহ ও তাঁর পরামর্শে মালচিং পেপার ব্যবহার করে জমিতে বীজ রোপণ করি। অল্পদিনেই তরমুজ চাষে এত সাফল্য পাব ভাবতে পারেনি। অল্প অসময়ে ফলন পাওয়ায় একই জমিতে বছরে ৪ বার ফসল ফলানো যাবে।

[৫] তিনি জানান, বীজ রোপণের জন্য বেড তৈরি করে মালচিং পেপারের ভেতর চারা রোপণ করেছি। সামান্য পরিচর্যা করেই গাছে তরমুজ ধরেছে। এ পর্যন্ত জমি প্রস্তুত, সার প্রয়োগ, মাচা তৈরি সুতা ও জাল বাবদ খরচ হয়েছে ৩৫ হাজার টাকা। খরচ বাদে ৮০ থেকে ৯০ হাজার টাকার তরমুজ বিক্রি করতে পারব।

[৬] বেসরকারি সংস্থা উন্নয়ন প্রচেষ্টার কৃষিবিদ নয়ন হোসেন বলেন, পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশন (পিকে এস এফ) এর সহযোগিতায় আমরা তিনটি ভিয়েতনাম জাতের তরমুজ নিয়ে কৃষকের মাঝে কাজ করছি, জাত গুলো হচ্ছে বøাকবেবী, মধুমালা, ইয়োলোবার্ড। এপ্রিল থেকে আগস্ট মাস পর্ষন্ত দুইবার চাষ করা যায়। এটিকে অমৌসুমী বা গ্রীস্মকালীন তরমুজ বলা হয়। ৩৩শতাংশ জমিতে চাষ করতে খরচ হয় ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকা এবং বিক্রয় হয় ১লক্ষ৩০ হাজার থেকে ১লক্ষ ৬০ হাজার টাকা। কৃষক আগ্রহী হওয়ার প্রধান কারণ মাত্র দুই মাসে তরমুজ বিক্রয় করা যায় । সাতক্ষীরার মাটি তরমুজ চাষের জন্য বেশ উপযোগী।

[৭] তিনি আরও বলেন, দেশের মাটিকে ব্যবহার করে কৃষকেরা এ জাতের তরমুজ চাষ করে বেশি লাভবান হবেন ও সচল হবে গ্রামীণ অর্থনীতি। চাকরির পেছনে বৃথা সময় ব্যয় না করে যদি কৃষিকাজে শিক্ষিত তরুণেরা এগিয়ে আসেন তাহলে নিজে স্বাবলম্বী হবে দেশের মানুষের পুষ্টি চাহিদা মিটাতে বিশেষ ভূমিকা রাখবে।

[৮ ]তালা কৃষি কর্মকর্তা হাজিরা খাতুন বলেন, তরমুজ চাষ বেশ লাভজনক। তরমুজ চাষে কৃষকেরা এগিয়ে এলে সরকারি সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হবে| সম্পাদনা: সঞ্চয় বিশ্বাস

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত