প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নিঝুম মজুমদার: দিনশেষে পুরুষের কেউ নেই!

নিঝুম মজুমদার: বাংলাদেশের যারা ‘নারীবাদ’ ধারণাটি নিয়ে কাজ করেন তাদের প্রধানতম টার্গেট, আক্রোশ, রাগ, ক্ষোভ, জ্বালা, যাতনা সবকিছু পুরুষদের নিয়ে। আমি লক্ষ্য করে দেখেছি ঘরে, বাইরে, কর্ম-ক্ষেত্রে মূলত এক নারীর উত্থানকে সবচাইতে বেশি ঘৃণা করে আরেকজন নারী, এক নারীর পেছনে লেগে থাকে আরেক নারী। নারী বিয়ের পর শ্বশুর বাড়ি এলে যাদের সাথে সেই নারীর টক্কর লাগে তারাও সব নারী (বেশিরভাগ ক্ষেত্রে)। আশ্চর্য হয়ে লক্ষ্য করেছি এই যে এক নারী অন্য নারীর পেছনে এমন রাত-দিন লেগে থাকে এটিকেও নারীরা নাম দিয়েছে ‘পুরুষতান্ত্রিক’ আচরণ হিসেবে। অথচ এক নারীর আরেক নারীর পেছনে এই লেগে থাকা, এটির নাম হতে পারতো ‘নারীতান্ত্রিক আচরণ’। কিন্তু তা হয়নি। অনেক খুঁজে, অনেক ভেবে তারা এই সমস্যার নাম সেই পুরুষের নামেই নামকরন করেছে।

মানে দাঁড়ায় কেষ্টা ব্যাটাই চোর। আমি এই ভাবনাকে বলি চিন্তার দৈন্যতা। চিন্তার গরিবি হালত। বাংলাদেশে নারী নির্যাতন আইন নামের একটা আইন আছে যেখানে বলা নেই পুরুষ ধর্ষিত হলে আসলে কী হতে পারে কিংবা পুরুষ ম্যারিটাল রেইপের শিকার হলে কী হতে পারে। এই আইনটি পুরোটা নারীবান্ধব। এটা জেন্ডার বায়াসড আইন। আরো অবাক করা বিষয় হচ্ছে এই নারীবাদীরা নিজেদের নামের শেষে হয় লাগাচ্ছে স্বামীর নাম নয়তো পিতার নাম। কেউ লাগাচ্ছে না মায়ের নাম। আবার কাবিন নামাতে টাকার অংক নিয়ে দর কষাকষিও চলছে। চিৎকার দিয়ে বলছে না, আমি কি পণ্য যে আমার দাম কাবিন নামায় থাকবে?

এই প্রসঙ্গ এলে তারা বলে, মেয়েরা বাবার সম্পত্তিতে অর্ধেক পায় সে কারণেই কাবিনের টাকা নাকি ভ্যালিড। কিন্তু আপনি দেখবেন না এই সম্পত্তির আইন পাল্টাতে একজন নারীও কথা বলছেন। আন্দোলন করছে না একজন নারীও। এসব নিয়ে একজন নারীবাদীকে আপনি কখনোই কথা বলতে দেখবেন না। আসলে সত্যটা হচ্ছে দিনের শেষে পুরুষের কেউ নেই। মাথা গুঁজে টাকা কামাও, রাত দিন হাড়ভাঙা পরিশ্রম কর। মাথার ঘাম পায়ে ফেলো। একটা কথা বলেছ, কী তোমার এই কথার নাম হয়ে যাবে পুরুষতান্ত্রিক আচরণ। একজন অপরূপা নারীর দিকে মুগ্ধ হয়ে তাকিয়েছো তো সেটি হয়ে যাবে মলেস্টেশন। পুরুষের মুক্তি একমাত্র মৃত্যুতে। হয়তো সেটিতেও নেই। এখন যা দেখছি কিংবা যেই ট্রেন্ড চলছে তাতে করে মনে হচ্ছে কবরের এপিটাফেও লেখা থাকতে পারে এমন- ‘এখানে ঘুমিয়ে রয়েছে এক ‘পুরুষতান্ত্রিক পুরুষ’। ফেসবুক থেকে

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত