প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] যুগোপযোগী হচ্ছে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন, সেপ্টেম্বরে মন্ত্রণালয়ে যাচ্ছে খসড়া প্রতিবেদন

শরীফ শাওন: [২] বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করা, সুশাসন প্রতিষ্ঠা, শিক্ষক নিয়োগ সহজতর করাসহ প্রাতিষ্ঠানিক উন্নয়নে আইন সংশোধনের কাজ চলমান রয়েছে। আইন সংশোধনে বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য অধ্যাপক ড. বিশ্বজিৎ চন্দকে আহ্বায়ক করে তিন সদস্যের কমিটি গঠন করেছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

[৩] সদস্য সূত্রে জানা যায়, নিয়োগ চাহিদা না পাঠানোয় অনেক বিশ্ববিদ্যালয়ে উপাচার্য এবং উপ উপাচার্য নিয়োগে কালক্ষেপন হচ্ছে। নিয়োগ এক্ষেত্রে সরকার সরাসরি নিয়োগ দিতে পারবে। নিয়োগ প্রক্রিয়া সহজতর করার বিধান রাখা হবে। আগে বিভাগগুলোতে একাডেমিক প্ল্যানিং কমিটি বা কারিকুলাম কমিটি ছিলো না, খসড়ায় তা যুক্ত করা হবে। ফ্যাকাল্টি বিষয়ে কমিটি থাকবে।

[৪] একাডেমিক কাউন্সিল ও সিন্ডিকেটেও সদস্য সংখ্যায় পরিবর্তন আসবে। বোর্ড অব ট্রাস্টিজে (বিওটি) এক তৃতীয়াংশ বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ের শিক্ষাবিদ রাখার বিষয়ে প্রস্তাব করেছে সংসদীয় কমিটি। এছাড়াও কমিটির কিছু প্রস্তাবনা রয়েছে, ইতোমধ্যে তাও সংযোজন করা হয়েছে।

[৫] বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্থায়ী ক্যাম্পাস ২৫ এর পরিবর্তে ৩৫ হাজার বর্গফুট করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। কমিশন কর্তৃক প্রণয়নকৃত গাইডলাইন, বেতন ভাতার গাইডলাইন তৈরি, তহবিল পরিচালনা সম্পর্কে নির্দেশনা, অপরাধ ও শাস্তির বিধানেও সংশোধনী প্রস্তাব করা হয়েছে।

[৬] সূত্র জানায়, খসড়া তৈরির কাজ এক মাসের মধ্যে শেষ হবে। পরবর্তীতে তা মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হবে। তবে খসড়াতে অনেক প্রস্তাব সংযোজন বা বিয়োজন হতে পারে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত