প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] বসুরহাটে কাদের মির্জা ও মিজানুর রহমানের তিন অনুসারী গ্রেপ্তার

অহিদ মুুকুল: [২] নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমানের তিন অনুসারীকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

[৩] গতকাল বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার চর কাঁকড়া, বসুরহাট পৌরসভা ও মুছাপুর এলাকায় পৃথক অভিযান চালিয়ে তাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

[৪] গ্রেপ্তার হওয়া ব্যক্তিরা হলেন কাদের মির্জার অনুসারী আজগর আলী ওরফে জাহাঙ্গীর (৩৫) এবং মিজানুর রহমানের অনুসারী ফারুক ইসলাম ওরফে লাভলু (২৭) ও আলাউদ্দিন (৪২)।

[৫] এর আগে জেলা পুলিশ সুপার মো. শহীদুল ইসলাম কোম্পানীগঞ্জে সাম্প্রতিক সহিংসতার ঘটনার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের গ্রেপ্তারে কঠোর নির্দেশ দেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে গত সোমবার থেকে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) সহায়তায় কোম্পানীগঞ্জ থানাপুলিশ হামলার ঘটনায় জড়িত ব্যক্তিদের ধরতে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান শুরু করে।

[৬] পুলিশ সূত্র জানায়, ধারাবাহিক অভিযানের অংশ হিসেবে গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে মুছাপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে আজগর আলী ওরফে জাহাঙ্গীরকে (৩৫) গ্রেপ্তার করা হয়। তার বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি ও বিস্ফোরক আইনে মামলাসহ মোট পাঁচটি মামলা আছে।

[৭] গত ১৯ ফেব্রুয়ারী উপজেলার চাপরাশিরহাট বাজারে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় ধারণ করা একটি ভিডিও চিত্রে আজগর আলীকে কাদের মির্জার অন্য অনুসারীদের সঙ্গে হামলায় অংশ নিতে দেখা গেছে। ওই সংঘর্ষের ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হয়ে স্থানীয় সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির নিহত হন।

[৮] মুছাপুর ইউনিয়ন পরিষদের (ইউপি) চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম ওরফে শাহীন বলেন, আজগর আলী এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসী ও একটি বাহিনীর প্রধান। তাঁর বাহিনীর কাছে এলাকার বর্গাচাষি ও ছোট ফেনী নদীর জেলেরা জিম্মি হয়ে আছে।

[৯] এদিকে গতকাল আরেক অভিযানে বসুরহাট পৌরসভার ৮ নম্বর ওয়ার্ড থেকে ফারুক ইসলাম ওরফে লাভলুকে (২৭) গ্রেপ্তার করা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে বিস্ফোরক আইনে একটি মামলা রয়েছে। একই দিন সকালে চর কাঁকড়া ইউনিয়নের ৩ নম্বর ওয়ার্ড থেকে আলাউদ্দিনকে (৪২) গ্রেপ্তার করা হয়।

[১০] গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুদ্দিন আনোয়ার বলেন, কোম্পানীগঞ্জে সম্প্রতি সংঘটিত সহিংসতার সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের আইনের আওতায় আনতে পুরো উপজেলায় অভিযান পরিচালিত হচ্ছে। দুজনকে শুক্রবার নোয়াখালীর চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পাঠানো হবে। এছাড়া গতকাল সকালে গ্রেপ্তার হওয়া আলাউদ্দিনকে ইতিমধ্যে আদালতের মাধ্যমে জেলে পাঠানো হয়েছে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত