প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] সংবাদ সম্মেলন করে শিবির সম্পৃক্ততার দায় প্রত্যাখান করলেন যুবলীগ নেতা

ইফতেখার আলম: [২] রাজশাহীতে ছাত্রশিবিরের সাথে সম্পৃক্ততা ও ২০ বছর ধরে ছাত্রশিবিরকে ইয়ানত প্রদান করার অভিযোগ অস্বীকার করে সংবাদ সম্মেলন করেছেন রাজশাহী মহানগর যুবলীগের দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক মো. মাহমুদ হাসান খান চৌধুরী ইতু।

[৩] বুধবার রাজশাহী নগরীতে সংবাদ সম্মেলনে এমন বক্তব্য দেন রাজশাহী মহানগর যুবলীগের দপ্তর সম্পাদক ইতু।
সংবাদ সম্মেলনে নিজের পারিবারিক পরিচয়, রাজনৈতিক কর্মকান্ডের অতীত ইতিহাস তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘আমি ছাত্রশিবিরের কর্মী পরিচয়ে শিবির ফান্ডে ২০ বছর যাবত ইয়ানত বা অর্থ প্রদান করছি বিষয়টি হাস্যকর ও শতভাগ মিথ্যা বলে দাবি করেন তিনি।’

[৪] সম্মেলনে সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘২০০৪ সালে তৎকালীন মহানগর ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি শহীদুল ইসলাম বিপুল ভাইয়ের হাত ধরে ১০ নম্বর ওয়ার্ড ছাত্রলীগে কর্মী হিসেবে কাজ শুরু করি। সেই সময় ১০ নম্বর ওয়ার্ডের কমিটি না থাকায় বোয়ালিয়া থানা ছাত্রলীগের সভাপতি মির্জা জনি ভাইয়ের নেতৃত্বে সকল প্রকার রাজনৈতিক কর্মসূচীতে সক্রিয় কর্মী হিসেবে কাজ করেছি।

[৫] এমনকি ২০১০-১৪ সাল পর্যন্ত রাজশাহী মহানগর ছাত্রলীগের সভাপতি মো. শফিকুজ্জামান শফিক ও সাধারণ সম্পাদক মীর তৌহিদুর রহমান কিটু ভাইয়ের কমিটিতেও উপ-পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক এর দায়িত্ব পালন করেছি।’

[৬] তিনি আরও বলেন, মূলত: আমার প্রিয় সংগঠন বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ও বর্তমান সংগঠন আওয়ামী যুবলীগকে প্রশ্নবিদ্ধ করার হীন মানসিকতা নিয়েই একটি স্বার্থান্বেষী কুচক্রী মহল এই জাতীয় ও স্থানীয় পত্রিকাসহ কিছু অনলাইন পোর্টালে মিথ্যে নিউজ করেছেন। এমন অমূলক, অসঙ্গতিপূর্ণ ও বানোয়াট মিথ্যে সংবাদের কারণে আমার সামাজিক ও রাজনৈতিক মর্যাদা ক্ষুন্ন হয়েছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত