প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঊর্ধ্বগতির মাঝেও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা নিয়ে কিঞ্চিৎ আশার সঞ্চার, আগস্টের পর খুলতে পারে শিক্ষার জট

মারুফ হাসান : স্কুল বন্ধ থাকার কারণে চার দেয়ালের মাঝে বন্দি হয়ে পড়েছে শিক্ষার্থীরা; বিশেষ করে নগর ও শহরাঞ্চলের শিশুরা। প্রাইয় সন্তানদের প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে অভিভাবকদের। মা স্কুল কবে খুলবে? অনলাইন ক্লাস এত বোরিং।

শিক্ষাই নাকি জাতির মেরুদণ্ড; পুরনোকালে কোন পণ্ডিতরা কেন এ কথা বলেছিলেন তা জানতে চাওয়াও বিপজ্জনক হতে পারে। নতুন পণ্ডিতেরা জ্ঞানদান করছেন। তারা জয়গান গাইতে গাইতে এমন অবস্থায় এসেছেন- হয়তো এখন সবক শুনতে পাওয়া শিক্ষাই যত গণ্ডগোলের মূল।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস মহামারি কারণে ২০২০ সালে নিয়মিত শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ রাখার পাশাপাশি অনুষ্ঠিত হয়নি পাবলিক পরীক্ষাগুলো। অনলাইনে বা টেলিভিশনে বিকল্প শিক্ষাদানের চেষ্টা হলেও তাতে সাফল্য এসেছে কমই। আর এসব কারণে শিক্ষা ক্ষেত্রে যে ঘাটতি তৈরি হয়েছে তা নিয়ে কোনো পরিকল্পনা এখনো যেমন চূড়ান্ত হয়নি তেমনি কবে স্কুল কলেজ খুলবে তাও এখনো নির্ধারণ করতে পারেনি সরকার। এতে দীর্ঘ থেকে দীর্ঘতর হচ্ছে শিক্ষার জট। ৫০৫ দিন ধরে বন্ধ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।

গত বছর ব্র্যাকের এক জরিপ অনুযায়ী, দেশের প্রায় ৫৬ শতাংশ শিক্ষার্থী দূরশিক্ষণের বাইরে থেকে যাচ্ছে। আর ইউনিসেফের এক গবেষণা জরিপে দেখা যায়, মহামারির মধ্যে বিশ্বে মোট শিক্ষার্থীর প্রতি তিনজনে একজন, অর্থাৎ প্রায় সাড়ে ৪৬ কোটি শিশু অনলাইনভিত্তিক শিক্ষা কার্যক্রমের সঙ্গে যুক্ত হওয়ার সুযোগ থেকে বঞ্চিত। দীর্ঘদিন স্কুল বন্ধ থাকায় অনেক শিশুর স্কুলে ফেরাই অনিশ্চিত হয়ে গেছে। পুরো দেশে বেড়ে গেছে বাল্যবিবাহ।

এদিকে করোনার ঊর্ধ্বগতির মাঝেও শিক্ষায় কিঞ্চিৎ আশার সঞ্চার হয়েছে। দেশব্যাপী গণটিকা কার্যক্রম চালু হলে আগস্টের পর ধীরে ধীরে খুলতে পারে শিক্ষার জট।

টিকা নিয়ে তৎপরতা দেখিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ও। গত রোববার এনিয়ে নির্দেশনা জারি করা হয়। এতে বলা হয়, করোনার বিস্তার রোধে মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের আওতাধীন সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন গ্রহণ ও অন্যদের ভ্যাকসিন নিতে উদ্বুদ্ধ করতে দায়িত্ব পালনের অনুরোধ করা হলো।

দেয়া হয় চার নির্দেশনা বলা হয়, সকল প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও ১৮ বছরের বেশি বয়সী শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা অনুযায়ী নিজ নিজ ভ্যাকসিন গ্রহণের বিষয়ে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধান উদ্বুদ্ধ করবেন। মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের আওতাধীন বিভাগ, জেলা, উপজেলা পর্যায়ের দপ্তর, সংস্থা, প্রতিষ্ঠান প্রধানরা নিজ নিজ দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ আওতাধীন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারী ও শিক্ষার্থীদের ভ্যাকসিন গ্রহণে উদ্বুদ্ধ করবেন। শিক্ষকরা অনলাইনে বা ভার্চ্যুয়াল ক্লাসে শিক্ষার্থীদের এবং তাদের পরিবারের সদস্যদের কোভিড-১৯ এর বিস্তার রোধে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণসহ কোভিড-১৯ এর ভ্যাকসিন বিষয়ে উদ্বুদ্ধ করবেন। সকল দপ্তর, সংস্থার কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং শিক্ষক, কর্মকর্তা-কর্মচারীরা ভ্যাকসিন গ্রহণের বিষয়ে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করতে স্থানীয় প্রশাসনকে সহযোগিতা করবেন।

শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছিলেন, আবাসিক শিক্ষার্থীদের টিকা দেয়ার পর খুলে দেয়া হবে বিশ্ববিদ্যালয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের অগ্রাধিকার ভিত্তিতে দেয়া হবে টিকাদান। টিকা প্রদান নিয়ে নানা জটিলতা থাকলেও ১৮ বছরের ঊর্ধ্বের সকলকে টিকা প্রদানের সিদ্ধান্তে সেই জটিলতাও কাটবে।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, শিক্ষা খাতে দীর্ঘ এই বিরতিতে সব থেকে বেশি ক্ষতির মুখে পড়েছেন চলতি বছরের এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার্থীরা। তারাও পেয়েছেন সুনির্দিষ্ট ঘোষণা। ভর্তির আগেই দেড় বছরের সেশনজটে ভোগা শিক্ষার্থীরা পেয়েছেন পরীক্ষার সূচি। যদিও একাধিকবার ঘোষণার পর বদলানো হয়েছে তা। আবার একাধিকবার বলা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় খুললেই নেয়া হবে পরীক্ষা।

শিক্ষা ক্যালেন্ডার অনুযায়ী চলতি বছরের পহেলা ফেব্রুয়ারি ও পহেলা এপ্রিল হওয়ার কথা ছিল এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা। কিন্তু করোনার সংক্রমণ ঠেকাতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় নেয়া হয়নি সে পরীক্ষা। এমনকি প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউয়ের মাঝামাঝি সময়ে সংক্রমণের হার প্রায় তিন শতাংশে নেমে এলেও পরীক্ষার হলে বসা হয়নি পরীক্ষার্থীদের। অপেক্ষার প্রহর শেষ হয়েছে। নভেম্বরে ও ডিসেম্বরে হবে তাদের পরীক্ষা, তিন বিষয়ে। আর পরীক্ষা নেয়া সম্ভব না হলে মূল্যায়নের জন্য দেয়া হয়েছে অ্যাসাইন্টমেন্ট। এই অ্যাসাইনমেন্টের সাতটি বিষয়ের বিভিন্ন ছোট বড় ভুল সংশোধন করেছে মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর (মাউশি)।করোনা তো যাচ্ছে না, স্কুল-কলেজ কি বন্ধই থাকবে | প্রথম আলো

গণমাধ্যমে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে ইউজিসি চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. কাজী শহীদুল্লাহ বলেন, করোনাভাইরাস মহামারির কারণে দেড় বছর ধরে বন্ধ থাকায় সেশনজটে পড়েছে বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। এই সময় অনলাইনে ক্লাস চললেও ছয় মাস ধরে চেষ্টা করেও কোনোভাবেই ভর্তি পরীক্ষা নেয়া যাচ্ছে না। যদিও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর আগেই ভর্তিপ্রক্রিয়া শুরু করেছে। তিনি আরও বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় খোলার ব্যবস্থা দু-এক মাসের মধ্যে করা হবে।

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষার সময় সেপ্টেম্বরে হতে পারে জানিয়েছে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক কমিটি। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির ভাইস চ্যান্সেলর ও সাধারণ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর গুচ্ছ পদ্ধতিতে ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক টেকনিক্যাল সাব-কমিটির আহ্বায়ক অধ্যাপক ড. মুনাজ আহমেদ নূর বলেন, সম্প্রতি ভর্তি পরীক্ষা বিষয়ক কমিটির একটি মিটিং অনুষ্ঠিত হয়েছে। লকডাউন শেষ হলেই প্রথম পর্যায়ের আবেদন বাছাইয়ের ফল প্রকাশ করা হবে এবং দ্বিতীয় পর্যায়ের আবেদন নেয়া শুরু হবে। এজন্য সব ধরনের প্রস্তুতিও সম্পন্ন হয়েছে। আশা করছি, সেপ্টেম্বর মাসের শেষে অনুষ্ঠিত হবে গুচ্ছ পদ্ধতির ভর্তি পরীক্ষা।

৭ই আগস্ট থেকে সশরীরে প্রাকটিক্যাল ক্লাস শুরু হচ্ছে কারিগরি বোর্ডের অধীনে থাকা শিক্ষার্থীদের। বোর্ডের অধীন ডিপ্লোমা স্তরের সকল শিক্ষাক্রমের ১ম, ৩য়, ৫ম ও ৭ম পর্বের ১ম ও ২য় শিফটের তত্ত্বীয় ক্লাস শুরু হবে। অনলাইন এবং স্বাস্থ্যবিধি মেনে ব্যবহারিক ক্লাস ও পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। ৩১শে জুলাই শনিবার বোর্ডের পরিচালিক (কারিকুলাম) প্রকৌশলী ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।শাহেদুল আলম ইমরান বোরকা না খোলায় শিক্ষকের নির্যাতনের শিকার বরুড়ার  বাতাইছড়ি উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণীর ছাত্রী মা… | Business education,  Health ...

জট খুলতে শুরু করেছে চাকরি পরীক্ষারও। সেপ্টেম্বরে পুলিশে প্রায় ১০ হাজার কনস্টেবল নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করা হবে। সম্পূর্ণ নতুন পদ্ধতিতে দুর্নীতিকে জিরো টলারেন্সে রেখে এই নিয়োগ হবে। পুলিশ সদর দপ্তর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সূচি প্রকাশ করা হয়েছে সরকারি হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স পদের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ প্রার্থীদের স্থগিত মৌখিক পরীক্ষার। ১লা আগস্ট রোববার বাংলাদেশ সরকারি কর্ম কমিশনের (পিএসসি) এক বিজ্ঞপ্তিতে মৌখিক পরীক্ষার সূচি প্রকাশ করা হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ২৭ ও ২৮শে আগস্ট দুইদিন সিনিয়র স্টাফ নার্স পদের মৌখিক পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। ওইদিন সকাল সাড়ে ১০টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পিএসসি কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হবে। তবে এখনো ঝুলে আছে একাধিক পরীক্ষা। তবে সার্বিক পরিস্থিতিতে এই পরীক্ষাগুলো আগস্টের পরে হওয়ার সম্ভাবনা দেখা দিয়েছে। বিবিসি,ডয়েচেভেল, মানবজমিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত