প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাউজানে ৫শ টাকা বেতনে আমন ধানের চারা রোপন করছে উপজাতি নারীরা

শাহাদাত হোসেন: [২] রাউজানে আমন ধানের চারা রোপনে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন কৃষকেরা।করোনার প্রার্দুভাবের কারণে সরকার ঘোষিত কঠোর বিধিনিষেধ থাকায় দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে কৃষি শ্রমিক না আসায় কৃষকেরা পাহাড়ি উপজাতি নারী-পুরুষ শ্রমিক দিয়ে আমন ধানের রোপন শুরু করেছন।

[৩] তবে হাতিয়া, রংপুর,ময়মন সিংহ,নেত্রকোনা, বাশখালী এলাকা থেকে অনেক কষ্ট করে নৌকায় ও সিএনজি অটোরিক্সায়, পায়ে হেটে কিছু সংখ্যা কিছু শ্রমিক আসলে ও তাদের চড়া দাম দিয়ে আমন ধানের চারা রোপন করছেন কৃষকেরা।

[৪] কৃষকেরা জানায়, বর্ষার মৌসুমের শুরুতেই পর্যাপ্ত পরিমাণ বৃষ্টি কম হওয়ায় আমন ধানের বীজতলা তৈয়ারী করতে বিলম্ব হয়। শেষে বৃষ্টি হলে বীজতলা তৈয়ারী করে। বীজতলা থেকে আমন ধানের চারা তুলে নিয়ে ফসলী জমিতে আমন ধানের চারা রোপন করা হচ্ছে।

[৫] উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় পরিদর্শনে দেখা যায়, কৃষকেরা কেউ জমিতে হাল চাষ করছেন, কেউবা জমির আইল কাটছেন, আবার কেউ বিছন তুলে ধান রোপণে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন। রাউজানের অনান্য এলাকার ফসলী জমিতে এখনো আমন ধানের চারা রোপন শুরু করেনি কৃষকেরা ।

[৬] রাউজান রাবার বাগান এলাকার কৃষক নেজাম উদ্দিন বলেন, আমি ৮ একর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদ করছি। কৃষি শ্রমিক সংকট হওয়ায় প্রতিজন কৃষি শ্রমিককে প্রতিদিন খাওয়া ব্যতিত ৮শত টাকা মজুরী দিয়ে জমিতে আমন ধানের চারা রোপন করতে হচ্ছে।

[৭] কৃষক নেজাম উদ্দিন আরো বলেন, কৃষি শ্রমিক সংকট দেখা দিলে পুরুষ শ্রমিকের পাশাপশি পাশ্ববর্তী কাউখালী উপজেলার ডাক্তার ছোলা এলাকা থেকে উপজাতীয় মহিলা প্রতিজন মহিলাকে দৈনিক ৫শত টাকা মজুরী দিয়ে জমিতে আমন ধানের চারা রোপন করেছি।

[৮] রাউজান উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাব্বির আহম্মেদ ও উপ সহকারী সনজিব কুমার সুশীল বলেন, রাউজানের ১৪টি ইউনিয়ন ও পৌর এলাকায় এ বৎসর আমন ধানের চাষাবাদের মৌসুমে ৭শত ৮০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের বীজতলা লক্ষ্যমাত্রা রয়েছে ।

[৯] তার মধ্যে ৬শত ৫৫ হেক্টর জমিতে আমন ধানের বীজতলা তৈয়ারী করা হয়েছে । রাউজানে এ বৎসর আমন ধানের চাষাবাদের মৌসুমে ১১ হাজার ৬শত ৫০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চাষাবাদের লক্ষ্য মাত্রা রয়েছে ।

[১০] এপর্যন্ত ২শত ৬০ হেক্টর জমিতে আমন ধানের চারা রোপন করা হয়েছে ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত