প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] গর্জনিয়া-কচ্ছপিয়ার লক্ষাধিক মানুষ পানি বন্ধি

হাবিবুর রহমান: [২] নাইক্ষ্যংছড়ির পার্শবর্তী রামু উপজেলার গর্জনিয়া কচ্ছপিয়াতে টানা কয়েক দিনের বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের পানিবন্দি হয়ে পড়েছে এলাকার লক্ষাধিক মানুষ।

[৩] টানাবর্ষণ ও পাহাড়ি ঢলে গর্জনিয়া কচ্ছপিয়ার নিম্ন এলাকা তলি গেছে। ডুবে আছে উপজেলার একাধিক ইউনিয়নের গ্রামীণ যাতায়াতের পথ। তলিয়ে গেছে বিভিন্ন গ্রামীণ সড়ক। এতে করে চরম দূর্ভোগে পড়েছে এখানকার হাজার হাজার মানুষ। বিশেষ করে বৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে ওই এলাকার নিন্মাঞ্চল কচ্ছপিয়া ইউনিয়ানের তিতার পাড়া, ডিককুল, দৌছড়ি, জামছড়ি, মৌলভির কাটা, শুকমুনিয়াসহ গর্জনিয়া ইউনিয়নের বড় বিল, পূর্ব জুমছড়ি, টাইম বাজার, পশ্চিম জুমছড়ি, গর্জনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের আশপাশের গ্রামের বসত বাড়িতে পানি উঠেছে।

[৪] খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সোমবার (২৬ জুলাই) থেকে অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ী ঢলে রামু উপজেলার কচ্ছপিয়ার তিতার পাড়া, গর্জনিয়া বাজার, শুকমুনিয়া ও গর্জনিয়া ইউনিয়নে কয়েকটি গ্রাম, পূর্ব বুমাংখিল, গর্জনিয়া বাজার হতে চাকমার কাটা গুরুর বাজার পর্যন্ত সড়কসহ কযেকটি গ্রামে পানি উঠে যাতাযত করতে পারছে না জনসাধারণ।

[৫] গর্জনিয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু মোঃ ইসমাইল নোমান জানান, হঠাৎ করে প্রবল বর্ষণে বন্যার ফলে কচ্ছপিয়ার বিভিন্ন এলাকায় বানের পানি উটেছে। বন্যা কবলিত মানুষের পাশে, তিনি এলাকার সকল শ্রেণী-পেশার মানুষ সহ সংশ্রিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

[৬] নুরুল আলম মেম্বার জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত হতে গর্জনিয়ার ইউনিয়নের টাইম বাজার হতে সিকদার পাড়া, পূর্ব জুমছড়ি, বড় বিল এবং শাহ সুজাঁ সড়কে পানি বিপদ সীমার উপরে বেড়ে যাওয়ায় সকাল হতে কোন জনসাধারণের চলাচল করে পারছে না । প্রবল বন্যার খবর পেয়ে, তৎক্ষানিক রামু উপজেলা নির্বাহী অফিসার প্রনয় চাকমা বন্যা কবলিত এলাকায় ঘুরে ঘুরে শুকনো খাবারসহ প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেন।

সর্বাধিক পঠিত