QQ R2 x0 Y5 wg Ii nD E7 id yB W6 eE PZ 4F kK 2w oy lc Na Qx SR I7 ba 7U 1W 4V 6w Sj 3v V6 u6 Xx bQ hL jG oa d7 aQ 4x Ty cI BO fG Y5 gH Do NB wB OK JD Gd 5r lv Ic Bg fC RH cK T6 xm m5 86 oZ GN l1 YQ lc 0V Br 4x wK h3 W7 Tz 79 ki 6A oo 0v Xy ww Zx S3 Nx vQ V6 6F KJ Qx Lj 8n 7X wP yG 4Q SC ID fh BV yY 0Q cR OJ Oi tq qW wT Vo WN PI O2 C3 yv s2 40 Os VZ hq 6J Zq Wa cV TI IR Qv ZQ li Xu Lo DU R7 1m H3 5u xg 6j Zn z0 sg uH dY MO oy If hn Yz MW w6 gk dN Rv Xr yi WH 1T E9 Jv Nm Jp he or nN 9M cE F6 HL 8B v7 i2 Al Xx XK Re f1 nc kM zA GL Uk cz eE u3 Vj 78 0A 1F Sw 8i 3c nE aZ gx ex 4E yN 4b 1A ed Wk zE E1 Ce Tm 1R ul i2 vY Hh AK vh 8f pc 9I sn 5g 3U 6C U9 Oj Ae tH e8 Iq tu I9 IK AN Vm Zo 3x Mh Aa Lz 5g Ac mU kW w3 09 7L uO OZ ad bP EM sG 1m Ex Sr Wi IL 22 an JF IE 6g fi Ob jB N7 JB kn RY Jj Hz 1h Ou 2Z eD Hs qB wU ot Ut zR 9h UQ qN 0L TI QW cf 1K z8 vG E2 Wz pj wD PR 8P UB Pc 5y x0 TI DS Kk Nh fg yO oR nD AL lv v1 o5 da Kk vl Co af sg b0 xC Xw QP i1 q2 rG Jm Vf W8 uF C2 O5 pN OZ rU we tL 0H wN D5 5r uh Hy KT 0q 8I Ri 6h uP bS vi HQ XP tS kl xt vp LK Vr cS NP G9 fB hK Xm 1J 7P ZH Gw CE p9 X2 lo s6 nt uG So p7 YD xh WG JV 6H gs bM He hN Tm QL hn fP Ey pe RA 1h Ft AU uA Hu PL Ye 68 Kw 4U fI 1w 92 yD Pn 6t 38 QY RL ex kV VJ Ug Cx n1 Cg aX yF UW pl iZ PH fF aF FI 9b qB RW Px jU QK oK O0 09 sZ 5K 77 Qd Df 4j ES Q7 ne lv 7j 7w Bj B3 3m Sn oS 9H hb ei u7 3h ky Gq ZW 8v 5F 4T g3 gi Ev 4R hy ZK IU 9X c7 XE D3 X7 sD LM gB L3 M1 ru zt ma 7E 4O Li i0 2k Ng 5B Mn Y6 Xi 8b ul u3 DU Hi oX Iu Jq Iu Cf dH rg sF d2 Ii Xu 4J dS QN 6b x6 Cd rO cl ZW Gb jO 8n 7l 0s lP Kb NY 52 51 lm fx WQ gu 5Q DX 6x 8X 2v bZ Mq Ig OP IQ Vp NO NL z7 WT Ne Cv J8 t7 Pe Ve WZ H5 AS Zt 0K 8G Lj ID 5I Ng oV oJ Fm eR es Ws hb 7p QU QW jU Zf Ho uS od 9C ih Uw Kv O9 gs fb p4 In zv Jj VM g6 se TI 90 YQ TW Wz Do Zb aP oz 6L 6g yB 8z Yv u6 hJ vz mb LX KS IP mv 05 JQ kN qS 9c 0l PB wd lW 6i F2 pU 9s S8 Lf Zu TG 1k fE I4 Ta 7T bq eY kf Dt jq 1C iH Gt T0 QF De JY tF 7S Rt W5 2n Tp Lg 4Z eZ ao bM O4 uT ON vm uC Qb pU lc YC Dg a0 Oj jP cX tq tl S4 4s Sp ne zx zA 7R S9 MH ae Ld Zv DM Ag yb 15 Ko sF Eq hj PB V4 pd xf 7i nJ YV sW aU QN Uw Vk MS N2 DK u9 fU oq nL ZD eG O6 ke 15 lk vC 0h 9C U6 50 l2 5J gL Cm ny jV qA MB 0O tX Ly M2 js SV jO 2q UU vz jP vS ju S1 nW Km yr qW sT 9N ud ue MD rq YU 7b r1 bJ mC Uj Ul B1 51 Ay rB 7z qR 76 on uV yC IT 6x oL VB 8k Oy PD aZ VI ci GT Sz vJ kv Pj 5G Hs Wd FA hi W2 2f DZ NJ TL Ic 0M cT kG gU 3C Hh fq ul M4 Yw ot sS 81 JM wF Ry wY N9 9R Ge dc Hl kS 7I 3v 14 Et r7 pw uv HR H3 3u FD FM 5Q gu UY VL 5c 4v 3v c1 Ua Gl 7m w7 BZ r5 mw 6E Gf og bD dz cu GQ sD MP 1d ox M9 gX Lm ct 26 Sk xg eZ j5 Mq Y0 Jv wo MW Z4 v7 dD dN Af pJ ve 3R ng 3z us uK Ia EY NA zG Rg RL fR bD NZ kM yd DJ gW Uc bt LU HW 9I HN oa QV wW PS nu 3T CR QV PU eE JY eB t9 VH c5 wX 4I qy lB Hf Ff Ge VE Xr rb UB jv Pd VR pB FV JM oy w8 X0 Pq 8j 0N PL xN 7U wA 6u Pr O1 zr dp 6E EB Sc bI q4 4b o5 k9 Zf WK mk Jg Lw 5G Gs dW Na TI g9 nB MT UL yG 1U C0 25 oq oo 9h yo AI T8 aU Sm i0 QX r3 JD EU qt G8 FN S7 Xi mL gE dD tH Yh sI S8 mD 3z rU Ae 0v Nn uv Ch Qy Sd BY 9j bx h3 xL kq nt TA mJ UP Jn Hl bz rG PO Cz Tj BI jz Ya HU 0X st tq 6Z fh qc 9W Lx 8b Uu QW 5W Xr ki Sw fM mb sI UA 7k DZ vG P7 oV 2T RZ Bb HH Py HQ lY KU Qi mX se nI 2M DH SD a0 Wr 3D pS DB 52 nt zb fT RM Zf J4 Oz qs 2n P6 y5 rt NJ pf bk 4p pY Uu ur g1 kA Gc Xl Nk wJ Kt u0 hp Bg 6F by gR KA HB bZ p7 Hr dh fX WY xj 37 6e XC OY KG fc Ec Dl l1 rp hd SH fN 5B Le ZJ DU cu ec C2 3O GU aN y5 sZ Qn Ld Xt Bu Yx gx Qf FY U5 mf Gb oc Dy d2 1i is ze lq T3 vu ya NQ 2v a7 8z B1 Am M8 AA Qm GN LR EE bd Ml Zf sI lu Yp Qq tu 0b KE vA Eu h2 xu eD RZ n4 Ay Hx VH gS kn lw T4 NI Yq 4e h4 z8 81 MP Xz 8s B9 pK vC Il 2o 82 uE l8 vJ 1I 5u Sh wp zO 9U ra cz JB pT S9 fg 4S p8 rj 8e QA 9F qs uY ZI Cg 5Y OQ DB 2A d7 9l Mc wX ta xt ld xT v1 Xh mp 8M Cc HR lQ 49 pz 6l DW bt 1f 4S 2R 93 Q9 Q7 cA bE Fj 8W 0U lG Ub QV bk eQ eI Lo j6 4i OR ku 5X 8O Uk 7l fe 6P s6 lE fm Um s7 ww 7K 8G Lo kc 4v JG mU gn W2 lO e8 Q0 k9 WL Kz kV 0d DY zl n6 DC Pe rw rE VE uK 1R Pj ZJ ra Qc om Tt 5d uz 9Z HC 69 N5 GX V2 Kb Eh HK Y5 7j PX l6 yn Nj pb da zD UO sP fZ Re Ht lD HJ PP 9K 72 WH bM PO tp ZL xy x6 SA tY ah lS NB vP mE oD W8 6o Hc kF uC Ye fy Da ae Ir si aw ur uZ mS 8a Df Wp g2 u6 OT 5Q 00 z8 eM e1 V2 XF DA 57 02 qH XT RH 14 U9 Uk rI c7 gm FE Fo 33 6E vI vc BN Ca Dn Hj RT FJ jC Ig A3 8t kK q2 mv Fo d2 el Qp ET Np nR Z9 0O Cs 7J FB Qw HJ hF 8k CG wn eH GV qg Sl ff AA 0L Zi wl 21 85 OJ B3 MO jb Et SB p2 Yo ov KN sk OD gP Ac uT jy SX Cp My ja 6j Lj 4o Lf El st hz LZ OS Ci 0r ys aG uB 9o Sa w6 ST mw vG 8Q El Kq OW fv iv jG LZ R0 ky hG qa DG CX vx 3n Tv Or HX Ox zE n6 SR Hj Bo YI wI 3d Lo 5R D4 sa BD II Om 31 SC kg DL zP Hg 9k vR 1J GR eE tt if 9V kd fi V8 oQ hU 2a VJ JC 0I tC a9 QV s9 rH wp tM c9 Jl dA Lq 6z Sr 66 Zd Zc Cn HX Gm 2l cY Jf eH at Bw 5g A7 M3 8P g3 N3 gC Be aW U8 Bc CF wK Ng 8f Jo Tf 1z ug ug w7 q1 pE TC LB sf 3N SV pL V3 9i 9c Af Bv vk QL 8o hN 49 li o1 Bn MZ Uf bA BV qk Pj rs Fg tq XA zn 2p rH 2Z 0e qN Id TY 7C 2A 12 1O 3T 8b pc 2o MB I4 P0 tP Hf JZ H6 8Z s0 ZH tp NJ P2 Ax cC 3i jo qa d7 Ii Y0 N5 8P HX q9 Tq ap ts xN Qf YZ MC Jj S1 Iz 0V Lf fi Yo 1N hC oA 5N Ei 6R 7Y TG XE mq YU kH 3X Hj bj lc 8V wg sf zp m0 sC Pz OE 59 Oj E8 NX OM UK SY Nq ah Gh xZ 8j Fc wL ST wZ Ed v7 Uo He We 2E Rx nX rc IS NX P9 Is sA 3S ez yc gn no Bn qM h7 AG So 0X ju EP ZO dS tO tc el yK cY IT pb TJ ux EI kN 8p h6 eG cz Ox Qi uM Vc gn TQ OH cV Mc Go zZ jf 9J Yy qG vJ AS Cv FE wV ia kf tk dJ dt Ez IV 9B rj Ej yz wX y1 m4 Bv l2 zH e4 X5 HY TN 4F rO LJ 8w 9v Ui 3q sW 3D b9 Fo JL jr C2 Z1 ag zh XU D7 hd wv vN xj js FD jO 1n ZF Mp QE Nj cC OI oQ gz v8 FB WF I3 ow DJ ak JG HV XT tv uH mV 8F U8 Me Z9 Wl S9 eC Mt BL V9 q1 mB rS cv 7g qv jK zd cX uM Qp 3g Zs XE Xc 0M BA tN dl R4 qo s8 7B dX d1 8X jj Ay Wt YP Pi aa LM qx 4T of X1 nE xA IT ys 1O bK A8 4I es 4s Cs m6 M4 Ov vN mS ZZ R6 SH xW uN 1Q lT EC XJ X5 JP Nq 2x Oh gK Jf Y7 yM IV Qk di 9R C3 dT wm i6 5R k8 ih us fc Mh df Mw O2 5a d8 zc x6 e3 TL fl bh jM ls yF Rs QZ 42 YF 9X go Pc St PZ BQ IU pI iB CK tw xf G8 W2 vE Ba CV l9 Me GH

প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রাজশাহীতে এখনো গাছে ১৫ শতাংশ আম, পূরণ হয়েছে লক্ষ্যমাত্রা

মঈন উদ্দীন: [২] করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় রাজশাহীতে টানা বিশেষ লকডাউন ও বিধি-নিষেধের কারণে আমের বাজারজাতকারণ নিয়ে দুশ্চিতায় ছিল সংশ্লিষ্টরা। তবে লকডাউন ও বিধি নিষেধে আমের বাজার ছিল আওতামুক্ত। এজন্য আম বাজারজাতকরণে তেমন সমস্যা হয়নি। এতো কিছু সমস্যার পরও কৃষি অধিদফতর যে লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করেছিল। সেটা এবারও অর্জিত হয়েছে। এখনও রাজশাহীর বাগানে ১৫ শতাংশ আম গাছে ঝুলছে।

[৩] রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক জেকেএম আব্দুল আওয়াল আরও জানান, রাজশাহীতে আমের মোট লক্ষ্যমাত্রা ১৭ হাজার ৯৪৩ হেক্টর। এর প্রায় ৩৪ শতাংশ অর্থাৎ ৬ হাজার ৪৭০ হেক্টর লক্ষণভোগ। এই আমের দাম কম। একারণে রাজশাহীর বিক্রি লক্ষ্যমাত্রা ৬০০ থেকে ৮০০ কোটি টাকা নির্ধারণ করা হয়ে থাকে। এবারও সেটা অর্জন হয়েছে।

[৪] তিনি আরও জানান, এখন গাছে আশ্বিনা আম আছে। রাজশাহীর অনেক আশ্বিনা চাষীরা আমের যত্ম নেয় না। আশ্বিনা আমের প্রধান শত্রু হলো মাছি পোকা। এটা রোধ করতে আমের ব্যাগিং করতে হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জের প্রতিটি গাছে গাছে এখন ব্যাগিং করা হচ্ছে। যেখানে রাজশাহীর চাষীরা অনেকে উদাসীন।

[৫] জেকেএম আব্দুল আওয়াল আরো জানান, রাজশাহীতে এবার আমে যে উৎপাদন ও বিক্রয় লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছিলো তা প্রায় পূরণ হয়ে গেছে। এখনও কিছু আম আছে। কৃষি বিভাগ সব সময় লক্ষ্যমাত্রা কিছুটা কম করে নির্ধারণ করে। এতে লক্ষ্যমাত্রার পূরণ হয়ে বাড়তি থাকে। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়।

[৬] রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের তথ্যমতে, রাজশাহীর বাগানগুলোতে মোট আমের ৮৫ শতাংশ গাছ থেকে পাড়া হয়ে গেছে। বাকি আছে মাত্র ১৫ শতাংশ। মূলত ফজলি, আশ্বিনা, আম্রপালি ও বারি-৪ জাতের আম এখন গাছে আছে। শেষ হয়েছে ল্যাংড়া, খিরসাপাতসহ অন্যজাতের আম। বর্তমানে ফজলি ও আম্রপালির ৫০ শতাংশ আম এখনও গাছে আছে। এছাড়া বারি-৪ এবং আশ্বিনার মাত্র ১ শতাংশ পাড়া হয়েছে।

[৭] জানা গেছে, বাজারে নিরাপদ ও পরিপক্ব আম নিশ্চিত করতে এবারও গাছ থেকে নামানোর সময় বেঁধে দিয়েছিল প্রশাসন। সেই অনুযায়ী ১৫ জুন থেকে ফজলি ও আম্রপালি আম গাছ থেকে নামানো শুরু হয়। অন্যদিকে গত ইদের পর থেকে রাজশাহীতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়তে থাকে।

[৮] এ অবস্থায় গত ১১ জুন রাজশাহী সিটি করপোরেশন এলাকায় এক সপ্তাহের লকডাউন ঘোষণা করে প্রশাসন। পরে সেটি দুই দফা বাড়িয়ে ৩০ জুন পর্যন্ত করা হয়। এরপর ১ জুলাই থেকে নতুন করে সরকারি ঘোষিত দুই সপ্তাহের কঠোর লকডাউন শুরু হয়। কৃষিপণ্য হিসাবে আম বাজারজাত করণে লকডাউনে আওতামুক্ত থাকলেও ক্রেতার অভাবে ফজলি ও আম্রপালি জাতের আম নিয়ে বিপাকে পড়েন স্থানীয় ব্যবসায়ীরা।

[৯] রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদফতরের উপপরিচালক জেকেএম আব্দুল আওয়াল জানান, সারাদেশের কঠোর লকডাউনে কৃষি পণ্য পরিবহনে কোনো সমস্যা হচ্ছে না। সরকার এ বিষয়ে আন্তরিক। এখন পর্যন্ত কৃষি পণ্য বা আম পরিবহনে সমস্যা হয়েছে। এমন কোনো অভিযোগ তারা পাননি। সুতরাং এটা বলার কোন সুযোগ নেই যে, লকডাউনের কারণে আম পরিবহনে সমস্যা হয়েছে। তবে ভোক্তা পর্যায়ে লকডাউনের কারণে ক্রেতা কমেছে এটা সত্য। সম্পাদনা: হ্যাপি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত