শিরোনাম

প্রকাশিত : ১১ জুলাই, ২০২১, ০৯:২৭ রাত
আপডেট : ১১ জুলাই, ২০২১, ০৯:২৭ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

[১]কুখ্যাত নাৎসির অসউইৎজ ডেথ ক্যাম্পের বেঁচে থাকা শেষ বন্দীদের একজন এসথার বেজারানোর মৃত্যু

সুমাইয়া ঐশী: [২] ৯৬ বছর বয়সী ঐ নারী জার্মানির হেমবার্গের একটি ইহুদি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। তার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে জার্মানির পররাষ্ট্রমন্ত্রী হেইকো মাস বলেন, জাতিগত বিদ্বেষ এবং বর্ণবাদের বিরুদ্ধে এসথার ছিলেন একজন প্রতিবাদী কণ্ঠ। বিবিসি

[৩] দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সেই কুখ্যাত হলোকাস্টের সময় অসউইৎজ ডেথ ক্যাম্পে ৪০ জন নারীকে নিয়ে গঠিত হয়েছিলো একটি দল। ঐ ক্যাম্পে যখন বিষাক্ত গ্যাস দিয়ে হত্যার জন্য গাড়িভর্তি ইহুদিদের নিয়ে আসা হতো, তখন তাদের লক্ষ্য করে বাদ্যযন্ত্র বাজিয়ে গান গাওয়াই ছিলো এই দলটির কাজ। এসথার ছিলেন এই দলেরই সদস্য। টাইমস অব ইসরায়েল

[৪] মাত্র ১৮ বছর বয়সে এসথারকে জোরপূর্বক বন্দীশিবিরে শ্রমিক হিসেবে নেওয়া হয়। সেখান থেকে কৌশলে এই দলে যুক্ত হন তিনি। বিশ্লেষকদের মতে, শুধুমাত্র এ কারণেই ঐ ক্যাম্পে প্রাণে বেঁচে থাকতে পেরেছিলেন এসথার। এবিসি নিউজ

[৫] বিশ্বযুদ্ধ শেষ হওয়ার পর ইসরায়েলে চলে যান এসথার। পরে ১৯৬০ সালে আবারো জার্মানিতে ফিরে আসেন তিনি। জীবিত অবস্থায় এসথার সঙ্গীতকেই জীবনের লক্ষ্য তৈরি করে নেন। বিভিন্ন স্কুল-কলেজে গিয়ে অসউইৎজ ডেথ ক্যাম্পে তার ভয়াবহ অভিজ্ঞতার কথা বর্ণনা করেন। তার জীবনের উদ্দেশ্য ছিলো, বিশ্ব যাতে হলোকাস্টের ভয়াবহতাকে ভুলে না যায়। এ নিয়ে জীবনের শেষদিন পর্যন্ত কাজ করেছেন এসথার। সম্পাদনা: আসিফুজ্জামান পৃথিল

  • সর্বশেষ
  • জনপ্রিয়