প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] রংপুরে এ্যালকাড ল্যাবরেটরিতে ডিবির হানা, ১৮ লাখ টাকার মালামাল জব্দ

আফরোজা সরকার: [২] বিধি বহির্ভূতভাবে ওষুধ উৎপাদনের অভিযোগে এ্যালকাড ল্যাবরেটরী নামে একটি কারখানায় অভিযান চালিয়েছে মহানগর গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ। সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ ক্যামিকেল, ওষুধ ও সরঞ্জামাদিসহ ১৮ লাখ টাকার মালামাল জব্দ করা হয়েছে।

[৩] শনিবার (১০ জুলাই) বিকালে নগরীর রবার্টসনগঞ্জ তাঁতীপাড়া ব্রিজ সংলগ্নে গড়ে তোলা ওই কারখানায় অভিযান চালানো হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন মহানগর পুলিশের সিনিয়র সহকারী কমিশনার (ডিবি) মো. ফারুক আহমেদ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রায়হানুল ইসলাম।

[৪] পুলিশের মিডিয়া সেল সূত্র জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে নগরীর রবার্টসনগঞ্জ তাঁতীপাড়ায় এ্যালকাড ল্যাবরেটরীতে অভিযানে গিয়ে অনুমোদন ছাড়া ওষুধ উৎপাদন ও পরিবেশ অধিদফতরের ছাড়পত্র না থাকার অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়। প্রতিষ্ঠানটি মালিক পরিবেশ অধিদফতরের ছাড়পত্র দেখাতে ব্যর্থ হন।

[৫] একই সঙ্গে ফায়ার সার্ভিস হতে প্রাপ্ত লাইসেন্সের মেয়াদ উত্তীর্ণ ছিল। তাদের উৎপাদিত পণ্য ‘জাইম ভেট’ এর অনুমোদনের মেয়াদ ২০১৯ সালে শেষ হয়। কিন্তু নতুন করে অনুমোদন না নিয়েই সেখানে অবৈধভাবে উৎপাদন কার্যক্রম চলছিল। একারণে কারখানা থেকে ওষুধ প্রস্তুতের বিপুল পরিমাণ ক্যামিকেল, উৎপাদিত ওষুধ এবং বিভিন্ন সরঞ্জামাদি জব্দ করা হয়।

[৬] বিভিন্ন অসঙ্গতি ও বিধি বহির্ভূতভাবে আবাসিক এলাকার মধ্যে ওষুধ উৎপাদনের অভিযোগ থাকায় সেখানে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এতে কারখানার মালিক আবু সাইফকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদণ্ডাদেশ দেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোহাম্মদ রায়হানুল ইসলাম।

[৭] সিনিয়র সহকারী কমিশনার (ডিবি ও মিডিয়া) মো. ফারুক আহমেদ বলেন, ভেজাল, নিম্নমানের ও অননুমোদিত ওষুধ নির্মূলে এ ধরণের অভিযান আগামীতেও অব্যাহত থাকবে। এজন্য নগরবাসীকে ভেজাল পণ্য উৎপাদনকারী ও প্রতিষ্ঠানের ব্যাপারে সচেতন হতে হবে।

সর্বাধিক পঠিত