প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ডা. রাজীব ঘোষ: হাসপাতালে অক্সিজেন ব্যবহারে মিতব্যয়ী হতে হবে

১. সেচুরেশন ৯৩/৯৪ পর্যন্ত বাড়তি অক্সিজেন লাগে না।
২. যাদের বাড়তি অক্সিজেন লাগে তাদের সেচুরেশন ৯৩/৯৪ রাখলে হয়, ৯৮/৯৯ করার জন্য অতিরিক্ত অক্সিজেন ব্যবহারটা অপচয় এবং স্বাস্হ্যের জন্য ক্ষতিকর।
৩. অনেক ক্ষেত্রে প্রোনিং করে অক্সিজেনের সেচুরেশন বাড়ানো যায় এবং অক্সিজেনের ব্যবহার কমানো যায়।
৪. নেজাল ক্যানুলা ও সিম্পল অক্সিজেন মাস্কের পরিবর্তে ননরিব্রিদিং মাস্কের ব্যবহার অক্সিজেনের অপচয় কমায়। কেবল নিশ্বাস নেবার সময় অক্সিজেনের প্রয়োজন। নেজাল ক্যানুলা ও মাস্কে অবিরাম অক্সিজেনের সরবরাহ হয় যার অর্ধেকের মত কাজে লাগে না। ননরিব্রিদিং মাস্কে সম্পূর্ণ অক্সিজেন ব্যবহার হয়।
৫. হাই ফ্লো ক্যানুলা ব্যবহারে প্রচুর অক্সিজেন খরচ হয় যা CPAP, BiPAP ব্যবহারে বাঁচানো যায়। যেখানে CPAP, BIPAP দিয়ে কাজ হবে সেখানে এইগুলো ব্যবহার করুন। CPAP, BiPAP এর সরবরাহ বাড়ান।
অক্সিজেন জীবন রক্ষাকারী, এর অপচয় রোধ করে সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত করুন।
অক্সিজেন উৎপাদন, সরবরাহ এবং অক্সিজেন সিলিন্ডার সংগ্রহ ও বিতরণে জাতীয় ভাবে সমন্বয় সাধন করুন। উৎপাদিত সমস্ত অক্সিজেন হাসপাতালে সরবরাহ করুন। আমদানী করে মজুত করুন।
সিলিন্ডারের সংখ্যা বাড়ানোর জন্য নাইট্রাস অক্সাইড, হ্যালোথেনের সিলিন্ডার এখন ব্যবহার করা যেতে পারে। ইন্ডাস্ট্রিয়াল সিলিন্ডারও পরিষ্কার করে ব্যবহার করা যাবে।
সামনে অক্সিজেনের চাহিদা অনেক বাড়বে। সময় থাকতেই পদক্ষেপ নিন।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত