প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] মহামারীতে উন্নত অর্থনীতির দেশগুলো ২ কোটি ২০ লাখ কর্মসংস্থান হারিয়েছে, বলছে ওইসিডি

লিহান লিমা: [২] অর্থনৈতিক সহযোগিতা ও উন্নয়ন সংস্থা (ওইসিডি) এর বার্ষিক কর্মসংস্থান আউটলুক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মহামারীতে চাকরি বাঁচাতে আর্থিক সহায়তাসহ অন্যান্য উদ্যোগ নেওয়ায় ২ কোটি ১০ লাখ চাকরি বাঁচানো সম্ভব হয়েছে। সিএনবিসি

[৩] এরপরও ধনী দেশগুলোতে দীর্ঘ মেয়াদে বেকারত্বের হার বৃদ্ধির আশঙ্কা রয়েছে। কারণ, অনেক কম দক্ষ কর্মী মহামারিতে নতুন চাকরি খুঁজে না পেয়ে বাস্তুচ্যুত হয়েছেন। ওইসিডির প্রধান স্টিফেন কারসিলো বলেন, ‘মহামারীতে হারিয়ে যাওয়া অনেক চাকরিই আর পুনরুদ্ধার করা যাবে না।’

[৪] ২০২১ সালের মে মাস পর্যন্ত ওইসিডিভুক্ত দেশগুলোর বেকারত্বের হার কমে হয়েছে ৬ দশমিক ৬ শতাংশ। যদিও এই হার মহামারী পূর্ববর্তী অবস্থার চেয়ে ১ শতাংশ কম। ওইসিডিজুড়ে যে ২ কোটি ২০ লাখ মানুষ কাজের বাহিরে রয়েছেন, তাদের মধ্যে ৮০ লাখ বেকার ও ১ কোটি ৪০ লাখ নিষ্কিয় রয়েছেন বলে মনে করা হয়।

[৫] ২০২৩ সালের তৃতীয় প্রান্তিক পর্যন্ত কর্মসংস্থান মহামারী পূর্ববর্তী অবস্থায় ফেরার সম্ভাবনা নেই বলে মনে করছে ওইসিডি। তবে এশিয়া প্রশান্ত মহাসাগরীয় উন্নত দেশের চাইতে এই সংকট ভালোভাবে পরিচালনা করায় দেশগুলো দ্রুত কাটিয়ে উঠতে পারে বলে জানানো হয়েছে।

[৬] প্রতিবেদনে বলা হয়, দীর্ঘস্থায়ী বেকারত্বের সবচেয়ে বড় ভূক্তভোগী হয়েছেন বঞ্চিত, দুর্বল, নারী ও স্বল্প দক্ষ শ্রমিকগণ। তরুণদের ওপর প্রভাব অপেক্ষাকৃত বয়স্কদের চেয়ে কমপক্ষে দ্বিগুণ হয়েছে। ওইসিডি’র মহাপরিচালক অ্যাঞ্জেল গুরিয়া বলেন, ‘বিশ্ব অর্থনীতির ওপর মহামারীর প্রভাব কাটাতে অনেক বছর সময় লেগে যাবে।’

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত