শিরোনাম

প্রকাশিত : ০৭ জুলাই, ২০২১, ০৮:০৯ রাত
আপডেট : ০৭ জুলাই, ২০২১, ০৮:২২ রাত

প্রতিবেদক : নিউজ ডেস্ক

[১] ঢাকা দক্ষিণ সিটির ২০ কর্মকর্তার তথ্য চেয়েছে দুদক

সুজিৎ নন্দী: [২] ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) ২০ কর্মকর্তার ব্যক্তিগত তথ্য চেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। এই কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে সরকারি টাকা আত্মসাৎ, রাজস্ব আদায়ে অনিয়ম, ঘুষ গ্রহণ, বদলি বাণিজ্যসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ আছে।

[৩] গত মাসের বিভিন্ন তারিখে পাঠানো কয়েকটি চিঠিতে দুদকের সহকারী পরিচালক ও অনুসন্ধানী কর্মকর্তা সৈয়দ নজরুল ইসলাম দক্ষিণ সিটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে এসব ব্যক্তির বিষয়ে তথ্য চেয়েছেন। বিভিন্ন সময় এ চিঠিগুলো পাঠানো হয়। সর্বশেষ গত ২৩ জুন একটি চিঠি পাঠানো হয়।

[৪] ডিএসসিসির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ফরিদ আহাম্মদ বলেন, দুদক থেকে বিভিন্ন সময় ২০/২১টিরও বেশ কয়েকটি চিঠি এসেছে। দুদক যেসব তথ্য চাচ্ছে, এর মধ্যে কিছু কিছু তথ্য সংগ্রহ করা কিছু সময় লাগবে। গত সপ্তাহেও তারা কিছু তথ্য দিয়েছেন। পর্যায়ক্রমে বাকি তথ্য দিতে সংশ্লিষ্ট দপ্তরকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। পর্যায়ক্রমে এসকল তথ্য বিভাগীয় প্রধানরা পাঠাবেন।

[৫] দুদকের ওই সব চিঠিতে দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের আওতাধীন ফুলবাড়িয়া সুপার মার্কেট-১, ফুলবাড়িয়া সুপার মার্কেট-২, সুন্দরবন স্কয়ার সুপার মার্কেট, গুলিস্তান ট্রেড সেন্টার, কাপ্তানবাজার কমপ্লেক্সসহ বিভিন্ন মার্কেটের নকশা, অনুমোদিত দোকানের সংখ্যা, বরাদ্দপ্রাপ্ত ব্যক্তিদের স্থায়ী ও অস্থায়ী ঠিকানাসহ তালিকা ইত্যাদি তথ্য চাওয়া হয়েছে।

[৬] পাশাপাশি নীলক্ষেত রোড সাইট মার্কেট সংক্রান্ত নথির সত্যায়িত ফটোকপি, অনলাইনে ট্রেড লাইসেন্স ইস্যু/নবায়ন ও পৌরকর গ্রহণ প্রকল্পসংক্রান্ত নথিরও তথ্য চাওয়া হয়েছে।

[৭] এসব চিঠিতে যাদের নাম এসেছে, তাদের মধ্যে রয়েছেন দক্ষিণ সিটির প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তার দায়িত্বে থাকা সাবেক অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী আসাদুজ্জামান আসাদ ও উপ-প্রধান সম্পত্তি কর্মকর্তা ইউসুফ আলী সরদার। পাশাপাশি রাজস্ব কর্মকর্তা শাহজাহান আলী, আলীম আল রাজি, সাবেক মেয়রের পিএস-২ ও কর কর্মকর্তা শেখ আবদুল কুদ্দুস, ক্যাশিয়ার আবদুস সালাম, প্রোগ্রামার নুরুল আলম, মেইনটেনেন্স ইঞ্জিনিয়ার সুভাশীষ ভৌমিক, উপকর কর্মকর্তা জসিমউদ্দিন, উপকর কর্মকর্তা আনিসুর রহমানসহ আরও কয়েকজন।

[৮] এদের মধ্যে রাজস্ব কর্মকর্তাদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন সময় অনিয়ম অভিযোগ আছে। এখানে দক্ষিণ সিটির বর্জ্য ব্যবস্থাপনাবিষয়ক উপদেষ্টা খন্দকার মিল্লাতুল ইসলামের নামে চিঠি এসেছে। কিন্তু করোনায় আক্রান্ত হয়ে খন্দকার মিল্লাতুল ইসলাম বেশ কিছুদিন আগে মারা গেছেন।

  • সর্বশেষ