প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] অভিনেতা দিলীপ কুমার মারা গেছেন

সালেহ্ বিপ্লব: [২] উপমহাদেশের কিংবদন্তী অভিনেতা তিনি, মৃত্যুকালে বয়স হয়েছিল ৯৮ বছর। বুধবার সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ মুম্বাইর পিডি হিন্দুজা হাসপাতালের আইসিউতে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন।  তার মৃত্যুতে চলচ্চিত্র জগতে নেমেছে শোকের ছায়া। জি ২৪

[৩]  হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. জলিল পার্কারের অধীনে চিকিৎসা চলছিলো বর্ষীয়ান অভিনেতার। এএনআই

[৪] শ্বাসকষ্ট নিয়ে হাসপাতালে ভর্তি ছিলেন তিনি। শেষ সময়ে স্ত্রী সায়রা বানু পাশে ছিলেন। আনন্দবাজার অনলাইন

[৫] দীর্ঘ দিন ধরেই বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় ভুগছিলেন দিলীপ কুমার। । স্ত্রী সায়রা বানু কয়েক দিন আগেই টুইট করে জানান, অভিনেতার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল।  গত ৩০ জুন তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

[৬] দিলীপ কুমারের প্রকৃত নাম মোহাম্মদ ইউসুফ খান। তিনি ১৯২২ সালের ১১ ডিসেম্বর পাকিস্তানের পেশোয়ারে জন্মগ্রহণ করেন।

[৭] দিলীপ কুমারের আসল নাম ইউসুফ সারোয়ার খান। ১৯২২ সালের ১১ ডিসেম্বর বর্তমান পাকিস্তানের পেশোয়ারে তার জন্ম। তার বাবা মোহাম্মদ সারোয়ার খান ছিলেন একজন ফল ব্যবসায়ী। ব্যবসার কাজেই এক সময় ইউসুফ খানের পরিচয় হয় সেসময়কার প্রখ্যাত সাইকোলজিস্ট ডা. মাসানির সঙ্গে, যিনি ইউসুফ সারোয়ার খানকে পরিচয় করিয়ে দেন ‌‌‌‘বোম্বে টকিজ’ এর মালিকের সঙ্গে।

[৮] ১৯৪৩ সালে ইউসুফ খান বোম্বে টকিজে যান চাকরি খুঁজতে, কিন্তু সেখানকার স্বত্বাধিকারী দেবিকা রানী তাকে অভিনেতার হওয়ার প্রস্তাব দেন। তার সিনেমার নাম বদলে দিলীপ কুমার রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

[৯] ১৯৪৪ সালে মুক্তি পায় দিলীপ কুমারের প্রথম ছবি ‘জোয়ার ভাটা’। প্রথম দিকে দিলীপ কুমারের কয়েকটি ছবি ব্যবসাসফল ছিল না। ১৯৬০ সালে ভারতের ইতিহাসের অন্যতম ব্যবসাসফল সিনেমা ‘মুঘল এ আজম’ দিলীপ কুমারের ক্যারিয়ারের মোড় ঘুরিয়ে দেয়। ছয় দশকের ক্য্যারিয়ারে তিনি ৬৩টি চলচ্চিত্রে অভিনয় করেছেন। তার স্ত্রী মুম্বাই চলচ্চিত্রের আরেক অভিনেত্রী সায়রা বানু।

[১০] ‘জোয়ার ভাটা’, ‘আন’, ‘আজাদ’, ‘দেবদাস’, ‘আন্দাজ’, ‘মুঘল ই আজম’, ‘গঙ্গা যমুনা’, ‘ক্রান্তি’, ‘কর্মা’, ‘শক্তি’, ‘সওদাগর’, ‘মশাল’সহ ৫০-এর বেশি বলিউড ছবিতে তিনি কাজ করেছেন। তপন সিনহা পরিচালিত বাংলা ছবি ‘সাগিনা মাহাতো’তে দিলীপ কুমার অভিনয় করেছিলেন। এই কালজয়ী ছবিতে তার নায়িকা ছিলেন সায়রা বানু।

[১১] আটবার তিনি সেরা অভিনেতা হিসেবে ফিল্ম ফেয়ার পুরস্কার জয় করেছেন। হিন্দি সিনেমাজগতের সবচেয়ে বড় সম্মান ‘দাদাসাহেব ফালকে’ পুরস্কারেও তাকে সম্মানিত করা হয়। ২০১৫ সালে সরকার দিলীপ কুমারকে দেশের দ্বিতীয় বড় সম্মান ‘পদ্মভূষণ’-এ সম্মানিত করে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত