প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মাসুদ রানা: বাংলায় ও-আর-এবং প্রসঙ্গে

মাসুদ রানা: এক ফেসবুকবন্ধু অনুরোধ করেছেন, ‘মাসুদ রানা সাহেব, বাংলা ভাষায়’ এবং ‘ও’ এর পার্থক্য ও প্রয়োগ বিষয় একটা লেখা আশা করছি। ধন্যবাদ।’ সত্যি বলতে, ও-আর-এবং বিষয়ে পার্থক্যসূচক কোনো পাঠ আমি ছাত্রজীবনে পাইনি। বস্তুতঃ সম-অর্থেই এদের ব্যবহার করেছি। কিন্তু শিক্ষকতার জীবনে এবং বিশেষতঃ লেখালেখির জীবনে প্রবেশ করে মনে হয়েছে এগুলোর মধ্যে ব্যবহারিক পার্থক্য থাকা উচিত।

এটি আমার অনিশ্চিত ব্যক্তিগত ধারণা যে, বাংলায় ও-আর-এবং তিনটি সংযোজক অব্যয় (পড়হলঁহপঃরড়হ) হলেও, এদের ব্যবহার যথেচ্ছ নয়। বাক্যে এদের ব্যবহারের নিয়ম আছে, যা অনুসরণ না করলে কথন ও লিখন সঠিক হয় না।

‘ও’ বনাম ‘এবং’ দুটি শব্দ (ড়িৎফং) বা দু’টি ক্ষুদ্র শব্দজোটের (ঢ়যৎধংবং) মধ্যে সংযোগের জন্যে যেখানে ‘ও’ ব্যবহার করতে হয়, সেখানে ‘এবং’ ব্যবহার হবে বিদঘুটে। আবার, দুটি উপবাক্যের (পষধঁংবং) মধ্যে সংযোগের জন্যে যেখান ‘এবং’ ব্যবহার করতে হয়, যেখানে ‘ও’ ব্যবহার করা যথেষ্ট নয়।

যেমন, ‘তুমি ও আমি’র মধ্যে ‘ও’ থাকা উচিত, সেখানে যদি ‘এবং’ দিয়ে ‘তুমি এবং আমি’ বলা অনুচিত বলে আমার মনে হয়। আবার, ‘তুমি প্রথম বাড়ী যাবে, মা কী বলেন শুনবে ও বুঝবে, এবং সে-অনুসারে কাজ করবে’ বাক্যে শেষ কাজটির আগে যে ‘এবং’ ব্যহার করা হয়েছে, সেখানে ‘ও’ ব্যবহার করা ঠিক হবে না বলে আমি মনে করি।

‘আর’ আর, বাংলায় যে ‘আর’ শব্দটি আছে, তা হচ্ছে ‘ও’ আর ‘এবং’ সংযোজকের মধ্যে একটি আপস। আপনি নির্দ্বিধায় ‘তুমি আর আমি’ কিংবা ‘তুমি ও আমি যাবো, আর সে ও তারা থাকবে’ বলতে ও লিখতে পারেন। ০৪/০৭/২০২১, লণ্ডন, ইংল্যাণ্ড

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত