প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

[১] পাথরঘাটায় মা-মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ, স্বামী পলাতক

অমল তালুকদার,সাগর আকন: [২] বরগুনার পাথরঘাটায় মা সুমাইয়া আক্তার (১৮)ও তার শিশু কন্যা সামিরা আক্তার জুই(৯মাস)কে হত্যা করে ঘাতক স্বামী শাহিন(২২)পালিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।এ ঘটনা ঘটেছে পাথরঘাটার হাতেমপুর গ্রামে।

[৩] শনিবার ৩ জুলাই সকাল ৮টার দিকে মা-মেয়ের মাটিচাপা দেয়া মৃতদেহ উদ্ধার করেছে।পুলিশ ওই গ্রামের খলিল মুন্সির ছেলে ঘাতক শাহিনের মা মোসা: শাহিনুর(৪৫) মামাতো ভাই ইমাম হোসেন (২৩) কে আটক করেছে ।

[৪] পাথরঘাটা থানার সাব-ইন্সপেক্টর (উপ-পরিদর্শক) রাজেত আলী বলেন, হাতেমপূর গ্রামের শাহিন মুন্সী ও তার স্ত্রী সুমাইয়া এবং শিশু কন্যা জুই নিখোঁজের ঘটনাটি আমাদের সন্দেহ এবং রহস্যজনক মনে হলে আমরা গতরাত থেকে বিভিন্ন সোর্সে দিয়ে কাজ শুরু করি এবং শাহিনের বাড়ির পিছনের পরিত্যাক্ত জমি থেকে স্ত্রী সুমাইয়া ও তার শিশু কন্যা জুইয়ের মাটিচাপা দেয়া মৃতদেহ উদ্ধার করতে সক্ষম হই।

[৫] অপর এক প্রশ্নের জবাবে মি.রাজেত জানান, পলাতক স্বামী ছাড়া ঘটনার সঙ্গে অন্য কেউ জড়িত রয়েছে কিনা সে বিষয়ে তদন্তের পরে বলা যাবে।

[৬] পাথরঘাটা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) আবুল বাশার জানান, মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বরগুনা মর্গে পাঠানো হয়েছে। তদন্ত রিপোর্টের পড়ে প্রকৃত ঘটনা জানা যাবে। শনিবার বেলা ১২টায় এ রিপোর্ট তৈরিকালে নিহত সুমাইয়ার বাবা রিপন বাদশা বাদী হয়ে হত্যা মামলার প্রক্রিয়া চলছিল।

[৭] ৩দিন ধরে নিখোঁজ এবং মা-মেয়ের মৃতদেহ উদ্ধারের ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য নানী জাহানারা এবং দাদী জবেদাকে থানায় নিয়ে আসা হয়।এই নৃসংস হত্যার ঘটনাটির খবর চারদিকে ছড়িয়ে পড়লে হাজার হাজার মানুষ ওই বাড়িতে ভিড় জমায়। মৃতদেহ পাথরঘাটা থানায় নিয়ে আসার পরেও প্রচুর দর্শনার্থীর ভিড় চোখে পড়ে।মা এবং মেয়েকে কেন হত্যা করা হলো তার প্রকৃত রহস্য জানা যায়নি।সম্পাদনা:অনন্যা আফরিন

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত