প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সেই শিশুটি এখন অনেকটাই সুস্থ, বাবা-মায়ের মনে এসেছে প্রশান্তি (ভিডিও)

নিউজ ডেস্ক: অনেকের প্রশ্ন ছিল-দুদিন পর শিশু হাফসা কেমন আছে। অবশেষে জানা গেল ২৩ দিন বয়সী হাফসা বেঁচে আছে। মায়ের এক ঘণ্টার লড়াই আর সেদিনের চিকিৎসকদের চেষ্টায় শিশু হাফসা এখন সুস্থ।

চিকিৎসকরা জানান, শনিবার সকালে হঠাৎ করে শ্বাসকষ্ট শুরু হয় শিশু হাফসার। এক পর্যায়ে শিশুটি নিথর হয়ে পড়ে। মা রেশমা বিষয়টি বুঝতে পেরে কৃত্রিমভাবে শ্বাস দিতে দিতে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। হাসপাতালের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে শিশুটির চিকিৎসা শুরু হয়। মায়ের বুদ্ধিমত্তা আর চিকিৎসক-নার্সদের তাৎক্ষণিক উদ্যোগে নতুন জীবন ফিরে পায় শিশুটি। রাজশাহীর মহানগরীর বোয়ালিয়া পাড়া এলাকার রেশমা-সজল দম্পতির কন্যা হাফসা।

কোলের সন্তান হাফসাকে তার মা মুখে বাতাসের মাধ্যমে কৃত্রিমভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস সচল রাখতে বাতাস দিতে দিতে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসেন। শনিবার (২৬ জুন) দুপুর ১২টা ৪৭ মিনিট রিকশাতে করে মা তার সন্তানের মুখে মুখ দিয়ে অক্সিজেন দেওয়ার চেষ্টা করছে। রিকশার সিটের পাশেই বসে শিশু সন্তানের বাবা সজল মাঝে মাঝে সন্তানের নাম ধরে জোরে ডাকছে মা মা বলে। তার শিশুটি সন্তানটি চিরতরে যেন ঘুমিয়ে না যায়। মা আদরের সন্তানটিকে বাঁচানোর জন্য সন্তানের মুখে মুখ দিয়ে অক্সিজেন দেওয়ার প্রাণপণ চেষ্টা করে যাচ্ছে।

এমন ছবিটি ভাইরাল হয়েছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। অনেকের প্রশ্ন ছিল-দুদিন পর শিশু হাফসা কেমন আছে। অবশেষে জানা গেল ২৩ দিন বয়সী হাফসা বেঁচে আছে। মায়ের এক ঘণ্টার লড়াই আর সেদিনের চিকিৎসকদের চেষ্টায় শিশু হাফসা এখন সুস্থ।

চিকিৎসকরা জানান, শনিবার সকালে হঠাৎ করে শ্বাসকষ্ট শুরু হয় শিশু হাফসার। এক পর্যায়ে শিশুটি নিথর হয়ে পড়ে। মা রেশমা বিষয়টি বুঝতে পেরে কৃত্রিমভাবে শ্বাস দিতে দিতে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। হাসপাতালের ২৪ নম্বর ওয়ার্ডে শিশুটির চিকিৎসা শুরু হয়। মায়ের বুদ্ধিমত্তা আর চিকিৎসক-নার্সদের তাৎক্ষণিক উদ্যোগে নতুন জীবন ফিরে পায় শিশুটি। রাজশাহীর মহানগরীর বোয়ালিয়া পাড়া এলাকার রেশমা-সজল দম্পতির কন্যা হাফসা।

 

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত